ঢাকা, রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ১৬ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০৫ অক্টোবর ২০১৯, ১১:৩০

প্রিন্ট

লিভারপুলে ফিরছেন সাবেক কোচ ব্রেন্ডন রজার্স

লিভারপুলে ফিরছেন সাবেক কোচ ব্রেন্ডন রজার্স
স্পোর্টস ডেস্ক

এ্যানফিল্ডের দায়িত্ব থাকাকালে লিভারপুলকে প্রিমিয়ার লীগ শিরোপার দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে দিয়েছিলেন ব্রেন্ডন রজার্স। চার বছর আগে লিভারপুল ছাড়ার পর লিস্টারসিটির দায়িত্ব নিয়ে প্রথমবারের মত লিভারপুলে আসছেন এই কোচ। লক্ষ্য সাবেক ক্লাবের শিরোপা মিশনকে গুড়িয়ে দেয়া। সেই সঙ্গে দাবী করেছেন নতুন এই ক্লাবটি শীর্ষ চারে অবস্থান নেয়ার উপযুক্ত।

২০১৪ সালে ম্যানুয়েল পেলিগ্রিনির অধীনস্থ ম্যানচেস্টার সিটিকে হারিয়ে লীগের শীর্ষস্থান দখলে ব্যর্থ হওয়ায় রজার্সকে কোচের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়েছিল মার্সিসাইড ক্লাবটি। ফলে তিন বছরের কিছুটা বেশী সময় কাটানোর পর এ্যানফিল্ড ছাড়েন রজার্স।

এর ৫ বছর পর জার্গেন ক্লপের অধীনস্থ লিভারপুল ফের আটকে যায় ম্যানচেস্টার সিটির জালে। সিটির সঙ্গে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে এগিয়ে গিয়েও অল্পের জন্য শিরোপা ঘরে তুলতে পারেনি অল রেডসরা। তবে এবার আটঘাট বেঁধেই মৌসুম শুরু করেছে লিভারপুল। শতভাগ জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতেই শনিবার ফের লীগ মিশনে নামবে তারা।

রজার্সের অধীনে এবার অবশ্য লিস্টারসিটি শুরুতে নজরকাড়া পারফর্মেন্স দেখিয়ে চলেছে। সপ্তাহের মধ্যভাগে সালজবার্গের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লীগে লিভারপুলের প্রদর্শনীটি প্রমান করে টানা অস্টম জয় পেতে হলে কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখে পড়তে হবে ক্লপের শিষ্যদের।

সেল্টিকের হয়ে স্কটল্যান্ডে লীগ শিরোপা জয়ের পর গত ফেব্রুয়ারিতে প্রিমিয়ার লীগে পদার্পন করেছেন রজার্স। লিস্টারে যোগ দিয়েই নতুন করে দলটিকে গড়ে তুলতে শুরু করেন তিনি। যেমনটি করেছিলেন ক্লদে পুয়েল। যার অধীনে ২০১৬ সালে লীগ শিরোপা জয় করেছিল লিস্টার। পরে ক্লাবটি পথ হারিয়ে ফেললে তাকে বিদায় করে রজার্সকে দেয়া হয় প্রধান কোচের দায়িত্ব। তার অধীনে এখন তালিকার সম্মান জনক অবস্থানেই রয়েছে লিস্টার।

রজার্সের ছোঁয়ায় ফের নতুন করে আত্মবিশ্বাস ফিরে পেতে শুরু করেছে কিং পাওয়ার স্টেডিয়াম। কারণ ইতোমধ্যে নিজেদেরকে শীর্ষস্থানীয় ক্লাবগুলোর সমকক্ষে পৌছে গেছে লিস্টার। দায়িত্ব নিয়ে প্রথমেই তিনি পুনর্গঠন করেছেন স্কোয়াড। গোল রক্ষক ক্যাস্পার সমিচেল ও স্ট্রাইকার জ্যামি ভার্ডিকে ছাড়া নিয়মিত তারকাদের কাইকেই প্রথম একাদশে রাখেননি তিনি। প্রিমিয়ার লীগে এখনো পর্যন্ত একটি ম্যাচে পরাজিত হয়েছে লিস্টার। লীগে ৭ ম্যাচে অংশ নেয়া ক্লাবটি ১৪ পয়েন্ট নিয়ে এখন তালিকার তৃতীয় স্থানে অবস্থান করছে। সেখানে তাদের উপরে রয়েছে শুধুমাত্র লিভারপুল ও শিরোপাধারী ম্যানচেস্টার সিটি।

দ্যা টেলিগ্রাফকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে রজার্স বলেন,‘ সবকিছু গড়ে তুলতে এখনো অনেক সময়ের প্রয়োজন। শীর্ষ দলগুলোর সঙ্গে বাকী দলগুলোর মধ্যে পয়েন্টের ব্যবধান বাড়ছে। তাই শেষ পর্যন্ত কতটুকু পথ পাড়ি দেয়া যাবে সেটি এখনো বড় প্রশ্ন।’

তিনি বলেন,‘ গ্রীষ্মকালীন দল বদলের সময় আমরা ১৯ মিলিয়ন পাউন্ড ব্যয় করেছি। তবে এ সময় আমরা আমাদের সেন্টার হাফ হারিয়েছি। তারপরও চ্যালেঞ্জ নিতে পিছ পা হইনি। এখানে এসে আমি উপরের দলগুলোর চ্যালেঞ্জ আনন্দ চিত্তে গ্রহন করতে চাই।’

ইতোমধ্যে তারুণ্য নির্ভর রোমঞ্চকর একটি দল গঠন করে ফেলেছেন রজার্স। যেখানে রয়েছেন ইংলিশ যুগল বেন চিলভেল ও জেমস মেডিসন, মিডফিল্ডার এনডিডি, ইয়রি টিয়েলেম্যান্স ও হার্ভে বার্নেস। সেই সঙ্গে দলভুক্ত করেছেন অভিজ্ঞ সমিচেল, ভার্ডি ও জনি ইভান্সকে।

শিরোপা জয়ী দলের সদস্য মার্স আলব্রাইটন শনিবার বদলী হিসেবে মাঠে নামার সুযোগ পেয়েছিলেন নিউক্যাসলের বিপক্ষে ম্যাচে। যেখানে লিস্টার ৫-০ গোলে জয়লাভ করেছে। মার্স বলেন, এবারের দলটি তিন বছর আগের দলটির চেয়েও শক্তিশালী।

অবশ্য লিস্টার হুমকি মোকাবেলার জন্য প্রস্তুত ক্লপ। তিনি বলেন,‘ আমি নিশ্চিত ব্রেন্ডন রজার্স ভাবছেন চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ম্যাচটির মত আমরা নিজেদের রক্ষা করার চেস্ট করব আর সেই সুযোগে ভার্ডি দৌড়ে গোলপোস্টের দিকে চলে যাবে। কিন্তু আমি অপেক্ষায় আছি ওই ফরোয়ার্ডকে ফেরত পাঠানোর জন্য।’

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত