ঢাকা, শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ আশ্বিন ১৪২৭ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ১২ আগস্ট ২০২০, ১৮:৫৯

প্রিন্ট

চেয়ারম্যানের প্রতি ৯ ইউপি সদস্যের অনাস্থা

চেয়ারম্যানের প্রতি ৯ ইউপি সদস্যের অনাস্থা
জামালপুর প্রতিনিধি

জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ'র বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতি ও নিয়ম বহির্ভূত কার্যকলাপসহ অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে অনাস্থা দিয়েছে ওই ইউনিয়নের ৯ ইউপি সদস্য।

বুধবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ইউপি সদস্যরা উপস্থিত হয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে প্রশাসক মো. এনামুল হকের কাছে লিখিত অনাস্থা প্রস্তাব দিয়েছেন।

৯ ইউপি সদস্যের স্বাক্ষরিত অনাস্থা প্রস্তাবে উল্লেখ করা হয়েছে, ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ ২০১৬ সালে নির্বাচিত হবার পর নিজস্ব সন্ত্রাসী বাহিনী তৈরী করে আতঙ্কে পরিণত হয়েছেন। ইউনিয়ন পরিষদে বলয় তৈরী করে অনিয়ম-দুর্নীতি, ইউনিয়ন পরিষদের তহবিল, বিভিন্ন সরকারী প্রকল্প কাগজে কলমে দেখিয়ে অর্থ লোপাট করেছেন।

অনাস্থা প্রস্তাবে উল্লেখ করা হয়েছে, মাহমুদপুর বাজারের পুরনো ইউপি ভবনের জায়গায় নির্মিত দোকানপাটের জামানত ও ভাড়া ইউনিয়ন পরিষদের ব্যাংক একাউন্টে জমা না হয়ে চলে যায় চেয়ারম্যানের পকেটে। ওই ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডের হাঁট-বাজারের আদায়কৃত ট্যাক্স, এলজিএসপি ফান্ডের টাকা, নির্বাচিত ইউপি সদস্যদের সম্মানী ভাতা, শ্রমিকদের একশ' দিনের কর্মসূচির টাকা, বিভিন্ন প্রজেক্টের লোভ দেখিয়ে সদস্যদের কাছ থেকে আদায়কৃত টাকা এবং টিআর কাবিখার টাকাও কাগজে কলমে অভিনব কায়দায় হাতিয়ে নেন এই চেয়ারম্যান।

তিনি গড়েছেন নামে-বেনামে বিপুল অর্থ সম্পদ। ঢাকডোল পিটিয়ে ফ্রি স্টাইলে দীর্ঘদিন ধরে এসব অপকর্ম করে বেড়ালেও মুখ খুলতে পারে না ওই ইউনিয়নের নাগরিক এমনকি ইউপি সদস্যরাও। টু শব্দটি করলেই তার পেছনে লেলিয়ে দেয়া হয় সন্ত্রাসী বাহিনী। প্রতিবাদকারীর ওপর নেমে আসে হুমকি-ধামকি, হামলা-মামলা, হয়রানি-নির্যাতন।

এসব কার্যকলাপে অতিষ্ঠ হয়ে ওই চেয়াম্যানের প্রতি অনাস্থা জানিয়েছেন মহিলা সদস্য মোছা. নুর বাহার, ২ নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. রেজাউল করিম, ৩ নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. মনোয়ার হোসেন, ৪ নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. জসিম উদ্দিন, ৫ নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. হানিফ উদ্দিন, ৬ নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. মিজানুর রহমান মাজেদ, ৭ নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. রেজাউল করিম, ৮ নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. আব্দুল হামিদ ও ৯ নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. ফজলুল হক।

তারা মোহাম্মদ আলী জিন্নাহকে ইউপি চেয়ারম্যানের পদ থেকে অপসারণ করে তার হাত থেকে ইউনিয়ন পরিষদ ও মাহমুদপুরবাসীকে রক্ষার দাবি জানিয়েছেন।

অনাস্থা প্রস্তাব জমা শেষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের বারান্দায় সাংবাদিকদের সামনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ইউপি সদস্য আব্দুল হামিদ।

এ প্রসঙ্গে ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ বলেন, আমার ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার জন্য এটি একটি চক্রান্ত। আমার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ আনা হয়েছে তা সত্য নয়।

জামালপুরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক বলেন, মাহমুদপুর ইউপি চেয়ারম্যানের অনাস্থা প্রস্তাবের লিখিত হাতে পেয়েছি। তদন্ত করে বিধি মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত