ঢাকা, সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ২৬ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০২ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৫:৫৮

প্রিন্ট

ইউটিউব ব্যবহারে দিতে হবে ট্যাক্স

ইউটিউব ব্যবহারে দিতে হবে ট্যাক্স
অনলাইন ডেস্ক

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানিয়েছেন, বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে কেউ ইউটিউব চ্যানেল চালালেও তাকে প্রচলিত আইন অনুযায়ী ট্যাক্সেশনের আওতায় আসতে হবে। সোমবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী একথা বলেন।

অনেকে ব্যক্তিগত ইউটিউব চ্যানেল খুলে বসেছে- এ বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ব্যক্তিগত ইউটিউব চ্যানেল করতে পারে। বাণিজ্যিক উদ্দেশ্য ছাড়া যে কেউ ফেসবুক অ্যাকাউন্ট যেমন করতে পারে তেমনি কেউ ব্যক্তিগত ইউটিউব চ্যানেলও করতে পারে।

বাণিজ্যের উদ্দেশ্যেই করা হচ্ছে এবং সেগুলো প্রচুর সংখ্যক শেয়ার করছে- এগুলোর বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, কেউ যদি বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে করে…, আমরা কিন্তু ইউটিউব, ফেসবুকসহ সবার সঙ্গে আলোচনা করেছি। তাদের মাধ্যম ব্যবহার করে যে ব্যবসা হচ্ছে বা বিজ্ঞাপন যাচ্ছে সেগুলোতে ট্যাক্স আরোপ করার কথা বলেছি। আমরা এনবিআরের সঙ্গেও কথা বলেছি। সুতরাং বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে কেউ যদি করে সেক্ষেত্রে অবশ্যই দেশের নিয়ম-ট্যাক্সেশন আইন অনুযায়ী আইন মেনে করতে হবে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন টেলিভিশনে যে বিদেশি সিরিয়াল ডাবিং করে প্রচার করা হচ্ছে সেগুলো অনুমতি নেওয়ার বাধ্যবাধকতা আরোপ করেছি ও অনুমতির জন্য দরখাস্ত করেছে। আমরা অনেকগুলো দরখাস্ত নিষ্পত্তি করেছি। একটি ছবি মুক্তি পেতে হলে তাকে সেন্সরবোর্ড হয়েই আসতে হয়। এই সিরিয়ালগুলো একটি ছবির চেয়েও সময় অনেক বেশি। কোনোটা ৫০ পর্ব, কোনোটা ৩০ পর্ব– এরকম বহু পর্বে ও প্রতিটা পর্ব হচ্ছে এক ঘণ্টা কিংবা আধা ঘণ্টা কিংবা ৪৫ মিনিটের পর্ব।

‘এগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়া অনুমোদন দেওয়া সম্ভব নয়। সে লক্ষ্যে আমরা ইতোমধ্যেই একটি বাছাই কমিটি গঠন করেছি। তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবের (সম্প্রচার) নেতৃত্বে কমিটিতে বিশিষ্ট নাট্য ব্যক্তিত্ব মামুনুর রশীদ, সারা যাকের, অ্যাসোসিয়েশন অব টেলিভিশন চ্যানেল ওনার্স প্রতিনিধি, ডিরেক্টরস গিল্ডের একজন প্রতিনিধি, অভিনয় শিল্পী সংঘের একজন করে প্রতিনিধি থাকবেন। একজন উপসচিব সাচিবিক দায়িত্ব পালন করবেন।’

এনএইচ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত