ঢাকা, রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ৫ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২১ জুলাই ২০১৯, ১১:৩১

প্রিন্ট

স্লোগান দিতে দিতে জবি ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

স্লোগান দিতে দিতে জবি ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখা ছাত্রলীগের দ্বিতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (২০ জুলাই) বিকাল ৩টায় বিজ্ঞান চত্বরে সামনে এই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

এদিকে সম্মেলনে তীব্র গরমে স্ট্রোক করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী সুলতান মো. ওয়াসি নামের এক শিক্ষার্থী মারা গেছেন।

জানা যায়, সুলতান মো. ওয়াসি সম্মেলনে যোগ দিতে এসে তীব্র গরমে অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিকটস্থ ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। এ সময় হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। পরবর্তীতে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে নেয়া হয় এবং ইসিজি করানোর পর চুড়ান্তভাবে তাকে মৃত ঘোষণা করেন ঢামেকের কর্তব্যরত চিকিৎসক।

এছাড়া সম্মেলনকে কেন্দ্র করে পদপ্রত্যাশী নেতারা নিজেদের জনশক্তি দিয়ে কেন্দ্রীয় নেতাদের শক্ত অবস্থান দেখানোর জন্য রাজধানীর বিভিন্ন স্কুল, কলেজের ছাত্র, অছাত্র ও শ্রমিক ভাড়া করে নিয়ে এসে শো-ডাউন দিতে দেখা গেছে। সম্মেলনের আগের রাতে বিভিন্ন নেতাদের কর্মীরা সামনের জায়গা দখল করে সারারাত অবস্থান করে। যাতে সেখানে প্রতিপক্ষ নেতার কর্মীরা এসে বসতে না পারে।

সারারাত জেগে থেকে সকালে সবাই ক্লান্ত হয়ে পড়ে। এদিকে সকাল ১১টায় বার্ষিক সম্মেলন শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু দুপুর পেরিয়ে বেলা তিনটায় মূল প্রোগ্রাম শুরু হয়। পদ প্রত্যাশী নেতাদের আগত কর্মীরা পাল্লা দিয়ে স্লোগান দিতে থাকে। এর এক পর্যায়ে এস এম ওয়াসি অসুস্থ হয়ে পড়ে।

সম্মেলনের প্রধান অতিথি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, বাংলাদেশ যা কিছু অর্জন করেছে তার সবটুকুতে ছাত্রলীগের অবদান রয়েছে। তৎকালীন জগন্নাথ কলেজের বর্তমানে (জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়) কোন মিছিল না গেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কোন আন্দোলন করতে পারত না।

এ সময় সম্মেলনে কেন্দ্রীয় নেতাদেরও উদ্দেশে তিনি বলেন, যাদের ছাত্রত্ব আছে, যেসব পদ প্রত্যাশিদের বিরুদ্ধে কোন কলঙ্ক নেই তাদেরকে ছাত্রনেতা বানানোর আহ্বান জানান তিনি।

উদ্বোধক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বলেন, শুধু নেতা নয়, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কর্মী হওয়াটাই গর্বের বিষয়। এ সময় ছাত্রলীগের কর্মীদের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শকে ধারণা করে এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান করেন তিনি।

প্রধানবক্তা হিসাবে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী বলেন, বির্তকিত, অযোগ্য ও তদবিরে কোন নেতা হবে না। যারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ইতিবাচক আদর্শ ধারণ করবে তারাই নেতা হবে। যাদের মধ্যে শৃঙ্খলা নেই তারা ছাত্রলীগের কর্মী হতে পারে না।

সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক আশরাফুল ইসলাম টিটনের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহ্বায়ক জামাল উদ্দিন সঞ্চালনায় আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য অ্যাডভোকেট কাজী নজীবুল্লাহ হীরু, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সাবেক শীর্ষ নেতারা বক্তব্য রাখেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/ওয়াইএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত