ঢাকা, শুক্রবার, ০৫ জুন ২০২০, ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ আপডেট : ৪২ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০৪ এপ্রিল ২০২০, ১৭:১৫

প্রিন্ট

করোনার ভ্যাকসিন নেয়ারা সুস্থ

করোনার ভ্যাকসিন নেয়ারা সুস্থ
প্রতীকী ছবি

Evaly

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

চীনে প্রথমবার করোনা ভ্যাকসিন নেয়া ব্যক্তিরা ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকার পর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। মোট ১০৮ জনের মধ্যে এই পরীক্ষা চালানো হয়েছিল। এর মধ্যে মোট ১৮ জন তাদের কোয়ারেন্টিনের পর্ব শেষ করে বৃহস্পতিবার বাড়ি ফিরে গেছে বলে জানা গেছে।

চীনের উহানে তারাই ছিলেন প্রথম ব্যক্তি, যাদের দেহে পরীক্ষা করা হয়েছিল এই সম্ভাব্য করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন।

বিশেষজ্ঞদের দল আরো ৬ মাস ওই ব্যক্তিদের ওপর নজরদারি চালাবে বলে জানানো হয়েছে। আগামী ৬ মাস ওই ব্যক্তিদের রক্ত নিয়ে তাতে নিয়মিতভাবে অ্যান্টিবডি পরীক্ষা করা হবে।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এই ভ্যাকসিন কার্যকর এবং নিরাপদ প্রমাণিত হলে, তারা বিদেশে অতিরিক্ত পরীক্ষা করার পরিকল্পনা করছেন।

প্রসঙ্গত, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১১ লাখ ছাড়িয়েছে। অথচ শুক্রবারও এই সংখ্যাটা ছিল ১০ লাখের কাছাকাছি। অর্থাৎ মাত্র একদিনেই নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন এক লাখেরও বেশি।

জন হপকিন্স ইউনিভার্সিটির তথ্যমতে, বর্তমানে বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১১ লাখ ২৮৩ জন। মারা গেছেন ৫৮ হাজার ৯২৯ জন।

এতে সবচেয়ে বেশি সবচেয়ে মারা গেছেন ইতালিতে। দেশটিতে ১৪ হাজার ৬৮১ জন করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন। স্পেনে মারা গেছেন ১১ হাজার ১৯৮ জন।

এছাড়া, ফ্রান্সে ৬ হাজার ৫০৭ জন, যুক্তরাজ্যে ৩ হাজার ৬০৫ জন করোনা আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন।

বিশ্বজুড়ে এপর্যন্ত ২ লাখ ২৬ হাজার ৬৬৯ জন করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়েছেন। সবচেয়ে বেশি সুস্থতার হার চীনে। দেশটিতে আক্রান্ত ৮২ হাজার রোগীর মধ্যে প্রায় ৭৭ হাজারই সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন।

স্পেনে ৩০ হাজার ৫১৩ জন, জার্মানিতে ২৪ হাজার ৫৭৫ জন, ইতালিতে ১৯ হাজার ৭৫৮ জন সুস্থ হয়েছেন। আক্রান্তের সংখ্যা বেশি হলেও যুক্তরাষ্ট্রে সুস্থতার হার অনেক কম। দেশটিতে এপর্যন্ত মাত্র ৯ হাজার ৮৬৩ জন করোনামুক্ত হয়েছেন।

গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের উহানে প্রথমবার শনাক্ত হয় নভেল করোনাভাইরাস। ইতিমধ্যেই বিশ্বের অন্তত ১৮১টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে এই ভাইরাস।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত