ঢাকা, রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬ আপডেট : ৮ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৪ আগস্ট ২০১৯, ০৮:৫৮

প্রিন্ট

ভারতে বন্যায় দেড় শতাধিক নিহত

ভারতে বন্যায় দেড় শতাধিক নিহত
কলকাতা প্রতিনিধি

ভারতের বন্যা কবলিত রাজ্যগুলিতে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। দেশটির ভয়াবহ বন্যা কবলিত কেরালা, কর্নাটক এবং মহারাষ্ট্রে মৃতের সংখ্যা ১৫০ ছাড়িয়েছে। মৃতদের বেশিরভাগই বন্যার পানিতে ভেসে কিংবা ডুবে মারা গিয়েছেন বলে জানা যায়।

ভারতের কেরালা রাজ্যে সরকারি হিসাব মতে এই পর্যন্ত বন্যায় নিহত হয়েছেন ৮৮ জন। নিখোঁজ রয়েছেন আরো ৪৪ জন। ভয়াবহ বন্যার কারনে কেরালার ১৩৩২ টি ত্রাণ শিবিরে আশ্রয় নিয়েছেন ২,৫২ লক্ষ বানভাসি মানুষ। বন্যার এই ভয়াবহ অবস্থার মধ্যেই ফের নতুন করে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে দিল্লির আবহাওয়া দফতর। কেরালার আলাপ্পুঝোলা, এর্নাকুলাম, ইড্ডুকি, মালাপ্পুরম এবং কোঝকোড়ে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করেছে প্রশাসন।

বন্যার ভয়াবহত পরিদর্শনে মঙ্গলবার কেরালার ওয়ানাডের চান্ডেলের সেন্ট জুডস কবরস্থান ইয়তাণ শিবিরে যান কংগ্রেসের সাবেক সভাপতি রাহুল গান্ধী। এদিন কেরলের বন্যাকবলিত এলাকা আকাশপথে ঘুরে দেখেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন।

অন্যদিকে, ভয়াবহ বন্যায় ভারতের কর্নাটক রাজ্যে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৮ জন। কর্নাটকের ২৭৩৮ টি গ্রাম পানিতে প্লাবিত হয়ে গিয়েছে। ৪০,৫২৩ টি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। রাজ্যের ১২২৪ টি ত্রানশিবিরে আশ্রয় নিয়েছেন ৬০,০০০ বন্যা দুর্গত মানুষ। বন্যার কারনে কর্নাটকে ৫০,০০০ কোটি রুপির ক্ষতি হয়েছে বলে সরকারি সূত্রে জানানো হয়েছে। কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বি এস ইয়েদুরাপ্পা মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে বন্যার্তদের জন্য ১০,০০০ কোটি রুপি ত্রাণ সাহায্য চেয়েছেন। বন্যার কারনে কর্নাটকের সব থেকে ক্ষতিগ্রস্ত জেলা হলো শিবমোজ্ঞা। এই জেলার বেশিরভাগ অংশই পানির নিচে।

কেরালা ও কর্নাটকের পাশাপাশি বন্যার ভয়াবহতা ছড়িয়ে পড়েছে ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যেও। সেখানে বন্যার প্রভাবে মারা গিয়েছেন ৪৩ জন মানুষ। মহারাষ্ট্রের কোলহাপুর, সাঙ্গলি এবং সাতারা জেলা সবথেকে বেশি বন্যা কবলিত। জেলাগুলিতে প্রায় ৪৭০০ কোটি রুপির ফসল ও সম্পদের ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া মহারাষ্ট্রের নাসিক ও উপকুল মহারাষ্ট্রে ২১০৫ রুপির মতো সম্পদ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ইতিমধ্যেই নিরাপদ স্থানে সরানো হয়েছে ৫-৬ লাখ মানুষকে। ৬১,০০০ গবাদি পশুকে নিরাপদ স্থানে সরানো হয়েছে। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ কেন্দ্রের কাছে বন্যায় ত্রাণের জন্য ৬৮১৩ কোটি রুপি সাহায্য চেয়েছেন।

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত