ঢাকা, রবিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ২৩ মে ২০১৯, ১৪:০২

প্রিন্ট

ঈদে নেই ভারতীয় সিরিয়ালের নামের শাড়ি

ঈদে নেই ভারতীয় সিরিয়ালের নামের শাড়ি
জার্নাল ডেস্ক

ঈদের দিন এগিয়ে আসছে। আর এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে কেনাকাটা। নারীদের নানা রকম পোশাক থাকলেও ঈদে পছন্দের একটি শাড়ি যেভাবেই হোক চাই। এবার ঈদে শাড়ির ফ্যাশনে বেশ বড় একটি পরিবর্তন এসেছে। ঈদের শাড়িতে দেখা গেছে আভিজাত্য ও নতুনত্বের ছোঁয়া। সেদিক থেকে মসলিন, বেনারসি, ঢাকাই জামদানি ও কাতান, জর্জেটের শাড়িই রয়েছে ক্রেতাদের প্রথম পছন্দে।

বাজার ঘুরে দেখা গেছে প্রতিবারের মত এবার কোনো ভারতীয় সিরিয়াল বা নায়িকার নামের শাড়ির প্রাধান্য নেই। এমন কি কমেছে পাথর, চুমকি, লেস বসানো জাঁকজমক শাড়ির চলও। নকশায় প্রাধান্য পাচ্ছে ট্র্যাডিশনাল সব মোটিফ। আর রঙের অনুপ্রেরণা উৎসব আর বর্ষা।

ধানমন্ডি হকার্স মার্কেটের শাড়ি দোকানিরা বলেন, নারী ক্রেতাদের রুচির এ বছর বেশ পরিবর্তন দেখা যাচ্ছে। খুব বেশি চকচকে বা জাঁকজমক শাড়ি বাজারে নেই বললেন চলে। একটু হালকা সুতার কাজ বা ফুলেল প্রিন্টের সিল্ক, মসলিন বা কাতান শাড়ি এবার বাজার দখল করে রেখেছে।

এই তীব্র গরম, আবার ঝুম বৃষ্টি। দাবদাহ যেন কমতে চাইছে না। তাই ঈদের দিন শাড়িটি পড়তে যেন কোনো রকম অস্বস্তি না হয় তাই আরামদায়ক শাড়িই কিনছেন ক্রেতারা।

তবে একদমই যদি লেটেস্ট ট্রেন্ডি শাড়ির কথা বলেন তবে অবশ্যই বলতে হবে পকেটওয়ালা শাড়ির কথা। শুনে অবাক লাগলেও এ বছরই এই শাড়ির ব্যাপক প্রচলন দেখা যাচ্ছে। আবার সিল্ক বা জর্জেটের শাড়ির সাথে লেডিস বেল্টও বিশ্ব ফ্যাশন বাজারের খুব দেখা গেছে। তাই অনেক নারীরাই শাড়ির সাথে কিনছেন লেডিস বেল্ট।

অন্যদিকে ঢাকার মিরপুরের বেনারসি পল্লীর দোকানগুলো ঘুরে দেখা গেছে, শাড়ির রঙে এবার প্রাধান্য পেয়েছে গাঢ় নীল, সবুজ, মেরুন, গোলাপি ইত্যাদি। এসব শাড়ির বুননে থাকছে কলকি, ফুল আর বরফি নকশার জমকালো কাজ।

কোনো কোনো শাড়িতে তিন রঙের ব্যবহার থাকছে, মিনার কাজ, চওড়া জরি পাড়ের নকশা। আর শাড়ির আঁচল ও কুচিতে এবার এসেছে পরিবর্তন। কাতান বা অ্যান্ডি সিল্কের শাড়ির আঁচল বা কুচিতে ব্যবহার করা হচ্ছে মসলিন কাপড়।

আরএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত
close
close