ঢাকা, রবিবার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬ আপডেট : ৯ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৬ জুলাই ২০১৯, ১২:৪০

প্রিন্ট

তথ্যমন্ত্রীর বক্তব্যে উস্কানিমূলক: রিজভী

তথ্যমন্ত্রীর বক্তব্যে উস্কানিমূলক: রিজভী
নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে সমাবেশকে ঘিরে তথ্যমন্ত্রীর বক্তব্যে উস্কানিমূলক ও অশুভ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

মঙ্গলবার রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রিজভী জানান, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আগামী ১৮ জুলাই বরিশাল, ২০ জুলাই চট্টগ্রাম এবং ২৫ জুলাই খুলনায় মহাসমাবেশ কর্মসূচী সফল করতে ব্যাপক প্রস্তুতি চলছে। জেলা-উপজেলায় প্রস্তুতি সভা হচ্ছে। এই শান্তিপূর্ণ মহাসমাবেশগুলোতে যোগ দিতে মানুষের আগ্রহের কোন কমতি নেই। মহাসমাবেশ ঘিরে সাধারণ জনগণের অভাবনীয় সাড়া দেখে সরকারের চিত্তচাঞ্চল্য বৃদ্ধি পেয়েছে।

বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশের নামে অতীতের মতো কোনো বিশৃঙ্খলা বা ভাঙচুর সহ্য করা হবে না- তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের এ বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, আপনি যে বিশৃঙ্খলার কথা বলছেন, সেটিই তো উস্কানিমূলক, একটা অশুভ উদ্দেশ্য নিয়েই এধরণের বক্তব্য রাখছেন। শান্তিপূর্ণ পরিবেশ না থাকলে তো কোন সমাবেশই হবে না, নিজেদের আয়োজনে নিজেরাই বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করবো এই কথা কি কেউ বিশ্বাস করবে? এসব কথা বলে পরিবেশ তিক্ত করছেন তথ্যমন্ত্রী নিজেই। পুলিশী তান্ডব, মাস্তানদের তান্ডবের মাধ্যমে বিরোধী দলের সভা পন্ড করার ইতিহাস ঐতিহ্য আপনাদেরই। বিশৃংখলা সৃষ্টি করেন আপনারা। আমাদের সব কর্মসূচী শান্তিপূর্ণ ছিল, আছে এবং থাকবে।

তথ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে রিজভী বলেন, কোন উস্কানীমুলক কথা বলে আমাদের নিবৃত্ত করতে পারবেন না। দম বন্ধ করা বাকশালী শাসনের বহমান অন্ধকার সময়ের অবসান ঘটিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীরা জনগণকে সাথে নিয়ে শান্তিপূর্ণ ও নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমে তাদের বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবো।

গতকাল কুমিল্লা আদালতে বিচারকের খাস কামরায় কি ভয়াবহ নজিরবিহীন নৃশংস হত্যাকান্ড ঘটনার বিষয়ে তিনি বলেন, সন্ত্রাস উইপোকার মতো রাষ্ট্র-সমাজকে ভেতর থেকে খেয়ে ফেলছে। দেশে কি ভয়ংকর পরিস্থিতি হলে একজন বিচারক এজলাসে তার নিজের নিরাপত্তা নিয়ে এমন আতঙ্কবোধ করছেন। আর সন্ত্রাসের নিরবচ্ছিন্নতা ও প্রসারে দেশজুড়ে জনগণের মধ্যে নীরব আতঙ্ক বিরাজ করছে। এমন পরিস্থিতি দেখে মনে হয়, দেশে কোন সরকারই নেই। তাই আমি এই ব্যর্থ সরকারের প্রতি আহবান জানাবো-ক্ষমতা জোর করে বেশী দিন ধরে রাখা যায় না, জোর জবরদস্তির পরিণতি বড় করুণ এবং ভয়ংকর। তাই ক্ষমতা ছেড়ে দিয়ে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিন।

কেএস

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত
close
close