ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ৩ আষাঢ় ১৪২৮ আপডেট : ৫০ মিনিট আগে

প্রকাশ : ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০:৫৭

প্রিন্ট

বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেল বাংলাদেশ

বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেল বাংলাদেশ

জার্নাল ডেস্ক

আইসিসি নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে শক্তিশালী নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের ভালো সম্ভাবনা তৈরি করেছিলেন বাংলাদেশের মেয়েরা। তবে ব্যাটিং ব্যর্থতায় তা আর হলো না। প্রতিপক্ষ কিউই নারীদের ৯১ রানে গুটিয়ে দিয়েও ১৭ রানে হার মেনেছেন সালমা খাতুনরা। এর ফলে শেষ হয়ে গেল বাংলাদেশের বিশ্বকাপ যাত্রা!

বিশ্বকাপে দুই ম্যাচ হেরে আগেই সেমিফাইনালের দৌড় থেকে প্রায় ছিটকেই গিয়েছিল বাংলাদেশ। নিজেদের শেষ দুই ম্যাচে নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয় দিয়ে টুর্নামেন্ট শেষ করতে চেয়েছিল সালমা বাহিনী। কিন্তু নিজেদের তৃতীয় ম্যাচেই কিউই নারীদের সঙ্গে হেরে টুর্নামেন্টের স্বপ্নই ভেস্তে গেল তাদের।

মেলবোর্নের জাংশন ওভালে ৯২ রান তাড়া করতে নেমে বাংলাদেশের শুরুটা তেমন ভালো হয়নি। মারমুখী ভঙ্গিতে শুরু করলেও নিজের ইনিংস বেশি বড় করতে পারেননি দলের একমাত্র বাঁহাতি ব্যাটসম্যান মুর্শিদা খাতুন। দুই চারের মাত্র ১৪ বলে ১১ রান করে ফিরে গেছেন সাজঘরে।

পরে রান করতে পারেননি চলতি বিশ্বকাপে নিজের প্রথম ম্যাচ খেলতে নামা আরেক ওপেনার আয়েশা রহমানও। তিনি ৮ বল খেলে সাজঘরে ফিরে যান মাত্র ১ রান করে। তৃতীয় উইকেটে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান নিগার সুলতানা জ্যোতি ও বল হাতে বাজিমাত করা রিতু মণি।

কিন্তু ইনিংসের দশম ওভারে অ্যানা পিটারসনের বলে সুইপ করতে গিয়ে ব্যাটে ওপরের কানায় লেগে বল আঘাত হানে জ্যোতির ঘাড়ের নিচে। ফলে তাকে চলে যেতে হয় আহত অবসর হয়ে। দলের রান তখন ৯.২ ওভারে ২ উইকেটে ৩১। জয়ের জন্য করতে হতো আরও ৬১ রান।

জ্যোতির এভাবে ফিরে যাওয়াটাই যেনো বড় ধাক্কা হয়ে আসে বাংলাদেশের জন্য। সে ওভারেই রানআউটে কাঁটা পড়েন দলের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান ফারজানা হক (৩ বলে ০)। এক ওভার একই ভুলে সাজঘরে ফিরতে হয় রিতু মণিকেও (২২ বলে ১১)।

হতাশ করেছেন দলের সেরা খেলোয়াড় রোমানা আহমেদ। ইনিংসের ১৩তম ওভারে তিনি সাজঘরে ফিরে যান ৮ বল খেলে মাত্র ২ রান করে। বাংলাদেশের সংগ্রহ তখন ১২.১ ওভারে ৫ উইকেটে ৪০ রান। কার্যত তখনই শেষ হয়ে যায় জয়ের আশা। এরপর ব্যর্থতার মিছিলে নাম লেখান শবনম মোস্তারি (১১ বলে ৬), ফাহিমা খাতুন (১১ বলে ৭), জাহানারা আলম (১ বলে ০) এবং সালমা খাতুন (৭ বলে ৪)।

তবে শেষদিকে নেমে লড়াই করেন জ্যোতি। এগার নম্বরে নামা পান্না ঘোষের সঙ্গে যোগ করেন ১৫ রান। জ্যোতির ব্যাট থেকে আসা ২৬ বলে ২১ রানের ইনিংসেই জয়ের ব্যবধানটা ১৭ রানে নামাতে পেরেছে বাংলাদেশ। পান্না অপরাজিত ছিলেন ৮ বলে ৫ রান করে।

বাংলাদেশ জার্নাল/কেআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত