ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে
শিরোনাম

চাঁদাবাজি-নাশকতা মামলায় সাংবাদিক রঘুনাথ খাঁ গ্রেপ্তার

  সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

প্রকাশ : ২৪ জানুয়ারি ২০২৩, ১৯:০৫  
আপডেট :
 ২৪ জানুয়ারি ২০২৩, ১৯:২৪

চাঁদাবাজি-নাশকতা মামলায় সাংবাদিক রঘুনাথ খাঁ গ্রেপ্তার
সাংবাদিক রঘুনাথ খাঁ। ছবি: প্রতিনিধি
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

সাতক্ষীরায় সাংবাদিক রঘুনাথ খাঁকে আটক করেছে পুলিশ। দেবহাটা থানার একটি চাঁদাবাজি ও একটি নাশকতা মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। ঘের ব্যবসায়ী কাজী সুরুজ ওয়ারেশের দায়ের করা চাঁদাবাজি ও দেবহাটা থানার এস আই চাঁদআলীর দায়ের করা বিস্ফোরক ও নাশকতা মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এই মামলায় সাংবাদিক রঘুনাথ খাঁ ছাড়াও কালিগঞ্জ থানার মোতাকাব্বিরের ছেলে ফারুক হোসেন ও দেবহাটা থানার টেপুখালি গ্রামের ফজর আলী গাজীর ছেলে রেজাউল করিম এবং দেবহাটা থানার চালতেতলা গ্রামের নওশের হালদারের ছেলে লুৎফর রহমানসহ অজ্ঞাতনামা আরও ২০/২৫ জনকে আসামি করা হয়েছে।

সাংবাদিক রঘুনাথ খাঁ সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার বিঞ্চুপুর গ্রামের মদনমোহন খাঁর ছেলে। রঘুনাথ খাঁ দীপ্ত টেলিভিশন ও প্রজন্ম একাত্তর পত্রিকার সাতক্ষীরা প্রতিনিধি।

সাতক্ষীরা জেলা পুলিশের দেয়া প্রেসনোট ও দেবহাটা থানার ওসি শেখ ওবায়েদুল্লাহ জানান, দেবহাটা উপজেলার শিমুলিয়া গ্রামের গোলাম ওয়ারেশের ছেলে কাজী সুরুজ ওয়ারেশ একজন ঘের ব্যবসায়ী। তার কাছে চাঁদাবাজ রঘুনাথ খাঁ, আনারুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম ও রফিকুল ইসলামসহ অন্যান্য আসামিরা ওই ব্যবসায়ীর নিকট পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। দুই দিনের মধ্যে টাকা না দিলে ওই মৎস্য ঘের লোক দিয়ে জবর দখল করে নেবে।

পুলিশ প্রেসনোটে আরও জানায়, রঘুনাথ খাঁ, কালিগঞ্জ থানার মোতাকাব্বিরের ছেলে ফারুক হোসেন ও দেবহাটা থানার টেপুখালি গ্রামের ফজর আলী গাজীর ছেলে রেজাউল করিম এবং দেবহাটা থানার চালতেতলা গ্রামের নওশের হালদারের ছেলে লুৎফর রহমান সোমবার সন্ধ্যায় দেবহাটার খলিসাখালি গ্রামের সামারা খালের ব্রিজের ওপর গাছের গুঁড়ি ও বাঁশ দিয়ে অবরোধ করে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় এবং মাছের ঘের দখলের চেষ্টা করে। বিষয়টি জানার পর দেবহাটা থানা পুলিশ সেখানে অভিযান চালিয়ে ককটেল ও বিস্ফোরক দ্রব্যসহ রঘুনাথ খাঁকে গ্রেপ্তার করে।

এসময় অন্যান্য আসামিরা পালিয়ে যায়। পুলিশ ঘটনাস্থ থেকে বোমা সদৃশ ৫টি ককটেল উদ্ধার করে। এঘটনায় দেবহাটা থানায় ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫(৩)ধারা ও ২৫-ডি তৎসহ ১৯০৮ সালের বিস্ফোরক উপাদানাবলি আইনে মামলা হয়েছে।

সোমবার সন্ধ্যায় তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে তাকে আদালতে পাঠায়। পুলিশ আরও জানায়, চাঁদাবাজি ও বিস্ফোরক দ্রব্য মামলাসহ একাধিক মামলা রয়েছে রঘুনাথ খাঁয়ের বিরদ্ধে। ২০০৭ সালের ১৪ মে যৌথ বাহিনীর অভিযানে সাতক্ষীরা ফুড অফিস মোড় থেকে তৎকালীন তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের গাড়ি চালক ইমান আলীর নিকট থেকে চাঁদার টাকা নেয়ার সময় হাতেনাতে গ্রেপ্তার হয়। এ ঘটনায় রঘুনাথ খাঁর বিরুদ্ধে সাতক্ষীরা সদর থানায় দ্রুত বিচার আইনে ঘটনার দিনেই মামলা হয়। মামলা নং-২৬, এই মামলায় সাতক্ষীরা আদালত সাংবাদিক রঘুনাথ খাঁকে চার বছর কারাদণ্ড প্রদান করেন।

এছাড়া রঘুনাথ খাঁ তার মা ও বাবাকে মারপিট করে হত্যার চেষ্টাসহ বাড়ি থেকে মালামাল নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় গর্ভধারিণী মা শ্রীমতী ঝরনা রানী বাদি হয়ে ২০০৭ সালের ২৪ মার্চ রঘুনাথের বিরুদ্ধে কালিগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নম্বর ২৭। এছাড়া রঘুনাথ খাঁর বিরুদ্ধে সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি ও কালিগঞ্জ থানায় চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন ব্যক্তির দায়ের করা আরও ৩টি মামলা রয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমপি

  • সর্বশেষ
  • পঠিত