ঢাকা, রবিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬ আপডেট : ১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৫ জুলাই ২০১৯, ২১:৩৪

প্রিন্ট

পানিবন্দি জামালপুরের দেড় লাখ মানুষ

পানিবন্দি জামালপুরের দেড় লাখ মানুষ
জামালপুর সংবাদদাতা

জামালপুরে যমুনা, ব্রহ্মপুত্র, ঝিনাই, জিঞ্জিরাম ও দশআনীসহ অন্যন্য নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় যমুনার পানি বাহাদুরাবাদ পয়েন্টে বিপদসীমার ১২৭ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বেশকিছু স্থানে সড়ক ভেঙে তীব্র গতিতে বন্যার পানি লোকালয়ে প্রবেশ করছে। বন্যা কবলিত হয়ে পড়ছে নতুন নতুন গ্রাম।

জেলার ইসলামপুর, দেওয়ানগঞ্জ, মাদারগঞ্জ, মেলান্দহ, সরিষাবাড়ী,বকসীগঞ্জ ও সদর উপজেলার বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়ে পড়েছে। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে প্রায় দেড়লাখ মানুষ। গরু ছাগল সহায় সম্পদ নিয়ে বানভাসী মানুষ আশ্রয়ের সন্ধানে এদিক-সেদিক ছোটাছুটি করছে। পানিবন্দি মানুষ চরম দূর্ভোগে পড়েছে। জেলা প্রশাসন প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল ত্রাণ বরাদ্দ দিলেও সেই ত্রাণ বানভাসীদের ঘরে পৌঁছেনি বলে অভিযোগ বন্যার্তদের।

যমুনার পানি বাড়ায় নতুন করে প্লাবিত হয়েছে মেলান্দহ উপজেলার মাহমুদপুর, দুরমুঠ, কুলিয়া, নাংলা, আদ্রা, ঘোষেরপাড়া, মাদারগঞ্জের বালিজুড়ি, জোড়খালি ও পাকেরদহ, সরিষাবাড়ীর পিংনা, আওনা ও পোঘলদীঘা। সব মিলিয়ে জেলার ৬৮টি ইউনিয়নের মধ্যে ৩৪টি ইউনিয়ন বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছে। বন্যা দুর্গতরা উঁচুবাধেঁ, সড়কে, রেললাইনে আশ্রয় নিয়েছে।

জামালপুরের জেলা প্রশাসক আহমেদ কবির জানিয়েছেন, বন্যার পানি ওঠায় জেলার ২৫৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। দুর্গতদের জন্য ২৯০ মেট্রিক টন চাল, নগদ ২ লাখ টাকা ও ২ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত
close
close