ঢাকা, সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ৪ মাঘ ১৪২৭ আপডেট : ৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১১:৫৮

প্রিন্ট

কনস্টেবল আমিরের রাজকীয় বিদায়!

কনস্টেবল আমিরের রাজকীয় বিদায়!
পুলিশ কনস্টেবল আমির হোসেনকে ফুলসজ্জিত গাড়িতে করে বাড়িতে পৌঁছে দেয়া হয়। ছবি প্রতিনিধি

রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে অবসরোত্তর ছুটিতে (এলপিআর) যাওয়া এক পুলিশ সদস্যকে জাঁকজমকভাবে বিদায় জানিয়েছেন তারই সহকর্মীরা। এই প্রথম লক্ষ্মীপুরের রায়পুর থানা পুলিশ কোনো সদস্যকে রাজকীয়ভাবে বিদায় জানাল।

বুধবার দুপুরের দিকে ৫৫ বছর বয়সী পুলিশ কনস্টেবল আমির হোসেনকে ফুলসজ্জিত গাড়িতে করে বাড়িতে পৌঁছে দেয়া হয়। এমন রাজকীয় কায়দায় আনুষ্ঠানিক বিদায় জানান রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল জলিলসহ অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যরা।

গত সোমবার ৩৩ বছর চাকরি জীবন শেষ করেন পুলিশ সদস্য আমির হোসেন। লক্ষ্মীপুর জেলার সদর থানার দত্তপাড়া ইউপির বড়ালিয়া গ্রামের বাসিন্দা আমির হোসেন। তার মা, বাবা, স্ত্রী ও একমাত্র ছেলে রয়েছে। ছেলে স্নাতকোত্তর পাস করে ভালো চাকরির জন্য অপেক্ষা করছেন।

বিদায় বেলায় এমন আনুষ্ঠানিকতা ও সম্মান পেয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন অবসরে যাওয়া পুলিশ কনস্টেবল আমির হোসেন।

বিদায়ী অশ্রুসিক্ত আমির হোসেন বলেন, ‘চাকরি জীবনে আমি কখনো দায়িত্বে অবহেলা করিনি। সহকর্মীদের সঙ্গে ভালো সময় কেটেছে। কয়েক বছর দেখে আসছি বড় বড় পুলিশ কর্মকর্তাদের ঢাকঢোল পিটিয়ে বিদায় দেয়া হয়; কিন্তু একজন সাধারণ পুলিশ সদস্যকে এভাবে বিদায় জানাবে কল্পনাও করিনি।’

‘আমি ধন্য, আমি কৃতজ্ঞ। বিদায়ের সময় টুপি, পাঞ্জাবি-পাজামাসহ নানা উপহার, সংবর্ধনা ও ওসি সাহেবের শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা পেয়ে আমি খুবই আনন্দিত। আগামীতে অন্য পুলিশ সদস্যদের জন্য এটি দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।’

এ প্রসঙ্গে ওসি আব্দুল জলিল বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, ‘সদ্য অবসরে যাওয়া পুলিশ কনস্টেবল আমির হোসেন একজন সৎ, দ্বায়িত্ববান, কর্তব্যপরায়ন এবং ধার্মিক পুলিশ সদস্য ছিলেন। আজ কর্মস্থল থেকে শেষবারের মতো একজন পুলিশ সদস্যকে বিদায়ের সম্মাননা দিতে পেরে নিজেকে সৌভাগ্যমান মনে করছি।’

বাংলাদেশ জার্নাল/ওয়াইএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত