ঢাকা, রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ৪৪ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৭ আগস্ট ২০১৯, ১৪:৪৭

প্রিন্ট

গ্রিনল্যান্ড কেনার সুযোগ পাচ্ছেন না ট্রাম্প

গ্রিনল্যান্ড কেনার সুযোগ পাচ্ছেন না ট্রাম্প
অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বের সবচেয়ে বড় দ্বীপ গ্রিনল্যান্ড কিনতে চেয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ নিয়ে তিনি নিজের উপদেষ্টাদের সঙ্গে আলোচনাও করেছিলেন। কিন্তু তার সেই শখ পূরণ হচ্ছে না। কেননা ট্রাম্পের ওই অদূরদর্শী পরিকল্পনায় ছাই ঢেলে দিয়েছে স্বয়ং গ্রিনল্রান্ড সরকার।

দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যানে লোন ব্যাগার রয়টার্সকে বলেছেন, ‘আমরা ব্যবসার জন্য তৈরি, কিন্তু বিক্রির জন্য নই।’

আগামী সেপ্টেম্বরে আর্কটিক এবং কোপেনহেগেনে সফর করার কথা রয়েছে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের। গ্রিনল্যান্ড ডেনমার্কের একটি স্বশাসিত অঞ্চল। এই সফরে ডেনমার্ক এবং গ্রিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ করবেন ট্রাম্প।

ট্রাম্পের গ্রিনল্যান্ড কেনার অদ্ভুত ইচ্ছার কথা প্রথম ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত হয়। দুটি সূত্র রয়টার্সকে জানিয়েছে, মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিশ্বের সবচেয়ে বড় দ্বীপ কিনে নেয়ার এই আগ্রহকে কয়েকজন উপদেষ্টা কৌতুক হিসেবেই ধরে নিয়েছেন। তবে হোয়াইট হাউসের অনেকেই বিষয়টিকে গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে। তবে ড্যানিস রাজনীতিবিদরা ট্রাম্পের এমন ইচ্ছার কথাকে মোটেও গুরুত্ব দিচ্ছেন না।

ট্রাম্পের এই অদ্ভুত ইচ্ছার কথা শুনে প্রচণ্ড বিরক্ত ডেনমার্কের সাবেক প্রধানমন্ত্রী লার্স লোকে রাসমুস। তিনি এক টুইট বার্তায় এ নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেন, ট্রাম্পের ইচ্ছাটিকে অসময়ে এপ্রিল ফুলের কৌতুক শোনার মত লাগছে।

আর ড্যানিশ পিপলস পার্টির পররাষ্ট্র বিষয়ক মুখপাত্র সোরেন এসপার্সেন বলেন, ট্রাম্প যদি এটা সত্যি সত্যিই এটা কেনার কথা ভেবে থাকেন বলতে হয়, তিনি একদম পাগল হয়ে গেছেন। তিনি আরো বলেন, ডেনমার্কের ৫০ হাজার নাগরিককে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে বিক্রি করে দেয়ার চিন্তা তো আসলেই একটা হাস্যকর ব্যাপার।

উত্তর আটলান্টিক এবং আর্কটিক মহাসাগরের মধ্যে অবস্থিত গ্রিনল্যান্ড ড্যানিশ অর্থনীতির ওপর নির্ভরশীল। দ্বীপটি নিজেদের অভ্যন্তরীণ বিষয় নিজেরা সামলালেও তাদের প্রতিরক্ষা এবং বৈদেশিক নীতির নিয়ন্ত্রণ করে থাকে ডেনমার্ক।

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত