ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬ আপডেট : ৪ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৩ আগস্ট ২০১৯, ১৬:০২

প্রিন্ট

আমাজন নিয়ে বিতর্কে ফ্রান্স-ব্রাজিল

আমাজন নিয়ে বিতর্কে ফ্রান্স-ব্রাজিল
অনলাইন ডেস্ক

আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যাচ্ছে পৃথিবীর অন্যতম বড় রেইন ফরেস্ট আমাজন। ছোট-বড় মিলিয়ে ৪০ হাজার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা একটু একটু করে শেষ করে দিচ্ছে পৃথিবীর ২০ শতাংশ অক্সিজেনের যোগানদাতা এই অরণ্যকে।

আমাজনের এই রেকর্ড অগ্নিকাণ্ডকে ‘আন্তর্জাতিক সংকট’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। তিনি বিষয়টিকে জি-৭ সম্মেলনের আলোচ্যসূচিতে অন্তর্ভুক্ত করারও দাবি করেছেন।

তবে তার এই দাবিতে চটেছে ব্রাজিল। ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনেরোর অভিযোগ, ম্যাক্রো ‘রাজনৈতিক সুবিধা লাভের’ জন্য আমাজনের অগ্নিকাণ্ডকে ব্যবহার করছেন। জি-৭ সম্মেলনে ব্রাজিল অংশগ্রহণ না করায় সেখানে এ অগ্নিকাণ্ড নিয়ে আলোচনা ‘ভুল স্থানে উপনিবেশবাদী মানসিকতা’ উন্মোচিত করবে, মন্তব্য বোলসোনেরোর।

প্রসঙ্গত, প্রতিবছর ২শ কোটি মেট্রিক টন কার্বন ডাই-অক্সাইড শোষণ করে এই বন। আর সে কারণেই বিশাল এই বন ‘পৃথিবীর ফুসফুস’নামে পরিচিত। এছাড়া পৃথিবীর বেশিরভাগ নদীর উৎস আমাজন। এখানে রয়েছে ৪৫ লাখ প্রজাতির পোকামাকড়, বাস করে তিন শতাধিক উপজাতি।

অথচ বিশ্বের এই গুরুত্বপূর্ণ বনভূমিই আজ হুমকির মুখে। প্রতিনিয়ত অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এই বন পুড়ে ছাই হয়ে যাচ্ছে। এমনটা চলতে থাকলে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম হয়তো এই অরণ্যের কথা শুধু বইয়েই পড়বে, চোখে দেখবে না। পরিবেশবাদীদের ধারণা, শুধু আমাজন কেন, সচেতন না হলে পৃথিবীতে আর কোনো অরণ্যই থাকবে না।

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত