ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ৫ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০৯ নভেম্বর ২০১৯, ১৭:৫৮

প্রিন্ট

বাবরি মসজিদ ভাঙার অনুতাপে মুসলিম হয়েছিলেন বলবীর-যোগেন্দ্র

বাবরি মসজিদ ভাঙার অনুতাপে মুসলিম যারা
বাবরি মসজিদ। ফাইল ছবি
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারতের বলবীর সিং ও যোগেন্দ্র পাল ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ ভাঙার অগ্রসেনানী ছিলেন। তারা দু’জন বাবরি মসজিদের গম্বুজের চূড়ায় উঠে দু’হাতে চালিয়েছেন শাবল। কিন্তু এখন তারা উভয়ই মুসলিম। রেখেছেন দাঁড়িও।

বাবরি মসজিদ ভাঙার পর বলবীর সিংহকে তার বাবা দৌলতরাম বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন। মসজিদ ভেঙে বাড়ি যাওয়ার পর তার বাবা তাকে বলেন, ‘বের হয়ে যাও ঘর থেকে। হয় তুমি এই বাড়িতে থাকবে, না হলে আমি।’ সেই থেকে ঘরছাড়া তিনি। তার সাথে তার স্ত্রী বের না হওয়ায় সে একাই বাড়ি থেকে বের হয়।

সে সময় ভবঘুরের মতো জীবন কাটিয়েছে বলবীর। অতঃপর বলবীরের বাবার মৃত্যুর পর প্রায়শ্চিত্ত করতে গিয়ে তিনি মুসলিম হয়ে যান।

অপরদিকে যোগেন্দ্র পালও মুসলমান ধর্ম গ্রহণ করেন। তিনি মুহাম্মদ আমির নাম ধারণ করেছেন। লম্বা দাড়ি রেখে দিয়েছেন। নিয়মিত ভোরে ফজরের আজান দেন তিনি। সব সময় আল্লাহর জিকির-আজকার করেন।

বলবীর সিংহ প্রতিজ্ঞা কররেন, বাবরি মসজিদ ভাঙার প্রায়শ্চিত্ত হিসেবে ভারতে ভেঙে পড়া ১০০ মসজিদ সংস্কার করবেন। বলবীরের দাবি অনুযায়ী ১৯৯৩ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত এ ২৫ বছরে উত্তর ভারতের বিভিন্ন জায়গায় বিশেষ করে মেওয়াটে অনেক ভেঙে পড়া মসজিদ খুঁজে বের করে সেগুলোর মেরামত করেছেন।

বলবীর সিং। ছবি: সংগৃহীত

মুহাম্মদ আমির আরো জানান, উত্তর প্রদেশের মেন্ডুর মসজিদও তিনি স্থানীয় মুসলিমদের সহযোগিতায় সংস্কার করেছেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত