ঢাকা, বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ৯ আষাঢ় ১৪২৮ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে

প্রকাশ : ১১ জুন ২০২১, ০৫:১১

প্রিন্ট

ভালোবাসার চন্দনবনে আগুন জ্বলছে

ভালোবাসার চন্দনবনে আগুন জ্বলছে

রাজিব কুমার

এখনো ভালোবাসার চন্দনবনে আগুন জ্বলছে

ভীষণ দ্রোহের দাবানলে বেদনার ভাস্কর্য নীল কষ্টে হাসছে....!

তোমার অবহেলা বিদ্রুপের অট্টহাসি মরুঝড়ে উড়ে গেছে....

চন্দনবনের শত-সহস্র ভালোবাসার কাঠগোলাপ, শিউলি-পারিজাত গন্ধরাজ।

ঊষর ভাবনায় পতিত হয়েছে ভালোবাসার বিঘা একর জমি।

অভিমানি মনে ঝাঁকে-ঝাঁকে মরেছে ময়না টিয়া কোকিল ঘুঘু-মুনিয়া ময়ুর কাকাতুয়া ধীরাজ।

হৃদয়ের শতদল সরোবর কাঠফাটা রোদ্দুর কষ্টে চাতক-চাতকী মেঘাম্বু পানে কাটিয়েছে মাস বছর হয়ে ফেরারি অনন্ত দিন।

দ্রোহের আগুনে বেদনার চাবুকে-চাবুকে ললাটে উল্কি এঁকে সুখের পরিযায়ী ভাবনাগুলো এভারেষ্ট সাইবেরিয়া হয়ে বলিভিয়ার জঙ্গলে হারিয়েছি অনেকদিন।

ভালোবাসার চন্দনবনে দ্রোহের দাবানলে আগুন জ্বেলেছি বার বার.....!

সময়ের অবহেলা কেউটে ছোবল কষ্টের আকন্ঠ বিষে আমি নীরবে হয়েছি নীলকন্ঠ, সরবে ভয়ঙ্কর কালরুদ্র....প্রলয়ে মহাকাল...!

ভালোবাসার চন্দনবনে পার করেছি অনেককাল।

সত্যের মুরারি বাঁশি, ঘৃণার কালা পাহাড় হয়ে--সময়ের ললাট না মেনে হয়েছি কখনো রাজদ্রোহী-সমাজদ্রোহী... বেদুইন কাবুলিওয়ালা বৃহন্নলা যাযাবর!

স্বার্থান্ধ প্রবঞ্চক ধর্মান্ধ নিষ্কর্মা মনে আমি ধর্মদ্রোহী।

বিদ্রোহের চাপা আগুন লেলিহান শিখা... ললাট কাপুরুষ-অদৃষ্টবাদী ভাগ্য রেখা পুড়ে ছারখার করে হেসেছি অনেকদিন।

সুখের চন্দনবনে এখনো বেদনার অশ্রুধারা বইছেঃ নিয়তির রংধেনু সাতরঙ রাঙিয়ে চিরসুখের বসন্তে কোকিল ময়ুর দোয়েল ধীরাজ ময়না রাজহংস শতদল জলকেলিতে আবার মেতেছে।

নিয়তি! ভালোবাসার চন্দনবনে সবাইকে ডাকছে।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত