ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০, ১৭ চৈত্র ১৪২৬ আপডেট : ৮ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২২:১৪

প্রিন্ট

শিগগিরই আসছে সিলেট আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি

শিগগিরই আসছে সিলেট আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি
সৈয়দ রাসেল, সিলেট প্রতিনিধি

সম্মেলনের মাধ্যমে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচনের ২ মাস পেরিয়ে গেছে। শীঘ্রই আসছে পূর্ণাঙ্গ কমিটি। চলতি মাসেই পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করতে দলীয় কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক বরাবর একটি চিঠিও পাঠিয়েছেন বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

এ দিকে পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে স্থান করে নিতে এরই মধ্যে শুরু হয়েছে নেতাকর্মীদের দৌড়-ঝাঁপ। স্থানীয় বলয় ঠিক রেখে তাদের লভিং চলছে কেন্দ্র পর্যন্ত। এ দৌড়ে সাবেক ছাত্রনেতা থেকে শুরু করে আছেন আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

দায়িত্বশীল নেতৃবৃন্দ বলছেন, দৌড়-ঝাঁপ যেই করুক, সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে থাকবে সৎ, ত্যাগী ও নতুন-পুরাতনের সমন্বয়।

২০০৫ সালের পর গত ৫ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয় সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন। আর ২০১১ সালের পর ২০১৯ এর শেষে আসে নতুন নেতৃত্ব। আংশিক কমিটি গঠনের দুই মাসেরও অধিক সময় পেরিয়ে যাওয়ার পর শুরু হয়েছে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের তোড়জোড়। সেইসাথে শুরু হয়েছে নেতাকর্মীদের দৌড়-ঝাঁপ। পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে স্থান পেতে লভিং চলছে কেন্দ্র পর্যন্ত। তবে দৌড়-ঝাঁপ যারাই করুক বিতর্কিতদের যেন কমিটিতে ঠাই দেয়া না হয় দাবি তৃণমূল নেতাকর্মীদের।

অবশ্য তৃনমূল নেতাকর্মীদের এ দাবির সাথে একমত দায়িত্বশীলরাও। সিলেট আওয়ামী লীগে নেতা হওয়ার দৌড়ে ছাত্রনেতা থেকে শুরু করে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ থাকলেও নবীন-প্রবীণদের সমন্বয়ে গ্রহণযোগ্য এবং বঙ্গবন্ধুকে ধারণ করা নেতাদেরকে কমিটিতে দিতে একাট্টা সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগ।

সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ বলেন, দলীয় সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাহেব এ মাসে পূর্ণাঙ্গ একটি কমিটি গঠন করার নির্দেশ দিয়ে চিঠি পাঠিয়েছেন। উনার নির্দেশনা মতো আমরা কাজ করছি। এই সময়ের মধ্যে যদি নাও পারা যায়, তাহলে মার্চের শুরু অথবা মাঝামাঝি পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করবো।

তিনি আরো বলেন, এবার নবীন প্রবীণের সমন্বয়ে ত্যাগী নেতাকর্মীদের দিয়ে কমিটি গঠন করা হবে। যিনি যোগ্য এবং বঙ্গবন্ধুর সঠিক আদর্শ যার আছে, তাকেই কমিটিতে স্থান দেয়া হবে। বিএনপি থেকে যারা আওয়ামী লীগে এসেছেন, তাদের কাউকে অন্তত এই কমিটিতে স্থান দেয়া হবে না বলেও জানান তিনি। বর্তমান আওয়ামী রাজনীতিতে যেমন হাইব্রিড নেতাদের জয়জয়কার, তেমনি এদের বিরুদ্ধে একাট্টা তৃণমূল আওয়ামী লীগ। তবে আসছে কমিটিতে সাবেক ছাত্রনেতা ও পরিচ্ছন্ন নেতাদের প্রাধান্য দেয়ার পাশাপাশি বিএনপি-জামায়াত থেকে আসা নেতাদের বিরুদ্ধে কঠোর থাকবে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগ।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমান বলেন, একসময় যারা ছাত্রলীগ করেছে পরে যুবলীগ করেছে, এবার তাদেরকে কমিটিতে মূল্যায়ন করা হবে। একই সাথে গত কমিটির যারা এখন সক্রিয়ভাবে রাজনীতিতে আছেন, তাদের মূল্যায়ন করা হবে। কোন অবস্থায় অনুপ্রবেশকারী কাউকে কমিটিতে স্থান দেয়া হবে না। কাজের ভিত্তিতেই মূল্যায়ন করা হবে।

নতুন এবং পুরোনোদের সমন্বয়ে কমিটি গঠন করা হবে, একই সাথে বিভিন্ন উপজেলায় যারা বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে এসেছেন তাদেরকে কমিটিতে জায়গা দেয়া হবে না বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত