ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে English

প্রকাশ : ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ১৮:৫৪

প্রিন্ট

ইমামের পেছনে সুরা ফাতেহা পড়লে কি গুনাহ হবে?

ইমামের পেছনে সুরা ফাতেহা পড়লে কি গুনাহ হবে?
প্রতীকী ছবি
ধর্ম ডেস্ক

নামাজ, রোজা, হজ, জাকাত, পরিবার, সমাজসহ জীবন ঘনিষ্ঠ ইসলাম বিষয়ক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠান ‘আপনার জিজ্ঞাসা’। দেশের বেসরকারি একটি টেলিভিশনের জনপ্রিয় এ অনুষ্ঠানটি জয়নুল আবেদীন আজাদের উপস্থাপনায় দর্শকের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বিশিষ্ট আলেম ড. মুহাম্মাদ সাইফুল্লাহ।

অনুষ্ঠানের ৬০৪তম পর্বে ইমামের পেছনে সুরা ফাতেহা পড়া জায়েজ কিনা সে বিষয়ে জানতে চান মোহাম্মদ হারুন।

এর জবাবে সাইফুল্লাহ বলেন, সুরা ফাতেহা পড়া জায়েজ নেই এবং পড়লে গুনাহ হবে, এই কথাটুকু ঠিক নয়।

ইমামের পেছনে কেরাত পড়ার ব্যাপারে আলেমদের দ্বিমত আছে। একদল ওলামায়ে কেরাম বলেছেন, ইমামের পেছনে কেরাত পড়া ওয়াজিব; আরেক দল ওলামায়ে কেরাম বলেছেন, কেরাত না পড়লেও চলবে। এই বক্তব্যকে ওই মুফতি সাহেব অন্যভাবে ব্যাখ্যা করেছেন। এটা বলা জায়েজ নেই যে পড়লে গুনাহ হবে। পড়লে গুনাহ হবে এই মর্মে কোনো ফকিহ, না ইমাম আবু হানিফা (রা.), না আবু শাফি (রা.), না ইমাম মোহাম্মদ, ইমাম আবু ইউসুফ, না অন্য কোনো ইমামের বক্তব্য পাওয়া গেছে। যেহেতু আল্লাহ আমাদের পড়তে নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, কোরআনের যতটুকু সম্ভব হয়, তোমরা পড়ো। সুতরাং, এখানে গুনাহ হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। যেহেতু আল্লাহ কোরআন তিলাওয়াতের জন্য নির্দেশ দিচ্ছেন।

আল্লাহর নবী রাসুল (সা.) বলেছেন, যে ব্যক্তি সুরা ফাতেহা পড়ল না, তার নামাজই হবে না। ওই মুফতি সাহেব নবী (সা.)-এর অথবা কোনো সাহাবির একটি বক্তব্য কি উল্লেখ করতে পারবেন, যে বক্তব্যের মধ্যে নবী (সা.)-এর অথবা সাহাবিদের কোনো এক সাহাবি বলেছেন যে, সুরা ফাতেহা সালাতের মধ্যে পড়বে না। এ বিষয়ে আলেমদের মধ্যে দ্বিমত থাকলেও বিশুদ্ধ বক্তব্য হলো, ইমামের পেছনে সুরা ফাতেহা পড়াই হচ্ছে বিধান। অধিকাংশ ওলামায়ে কেরাম বলেছেন, সালাতের মধ্যে সুরা ফাতেহা না পড়লে সালাতই হবে না।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত