ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮ আপডেট : ৪৩ মিনিট আগে

একজন টিম বয় মাসুম গাজীর গল্প

  মো. ইমরান হোসেন

প্রকাশ : ২৫ আগস্ট ২০২১, ২১:৩৭

একজন টিম বয় মাসুম গাজীর গল্প
ছবি সংগৃহীত
মো. ইমরান হোসেন

ক্রিকেটারদের অনুশীলনে দেখা যায় টিম বয় বা সাপোর্ট স্টাফদের। বল কুড়িয়ে দেয়া, ব্যাগ গুছিয়ে রাখা, কখনো থ্রোয়িং, ক্রিকেটারদের পানীয় বা খাবার দেয়া, প্রয়োজনে ম্যাসাজ করা, মোট কথা দল শৃঙ্খল রাখতে টিম বয়দের ভূমিকা রয়েছে অতপ্ররিতভাবে। তাদেরই একজন মাসুম গাজী। বাংলাদেশ জার্নালের সঙ্গে একান্তে কথা বলেছেন তিনি।

মোহাম্মদ আশরাফুল, মাশরাফি বিন মর্তুজা, মুশফিকুর রহিম, মুমিনুল হক, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের খুব কাছের একজন মাসুম। ব্যবহার, আচরণ ও সততা দিয়ে তারকা ক্রিকেটারদের মন জয় করে নিয়েছেন। শুধু দেশের ক্রিকেটারই নয়, ভিনদেশি ক্রিকেটারদের সাথে মাসুমের রয়েছে দারুণ সখ্যতা।

ইউনিভার্সেল বস ক্রিস গেইল, রবি বোপারা, রায়ান বার্লদের ভালোবাসায় সিক্ত হয়েছেন বারবার। জিম্বাবুয়ে থেকে মাসুমের জন্য জার্সি পাঠিয়ে সেই ভালোবাসার প্রমাণ দিয়েছেন রায়ান বার্ল। জিম্বাবুয়ের এই ক্রিকেটার বলেন, ‘মাসুমের সাথে পরিচয় থেকেই ওর গুণে মুগ্ধ হয়েছি। ওর হৃদয় অনেক বড়। আচরণ ও সততা আমাকে অবাক করেছে। জার্সি দিতে পেরে আমি খুশি। মাসুমের জন্য অনেক অনেক শুভেচ্ছা।’

বাংলাদেশের কিংবদন্তি ক্রিকেটার ও সফল কাপ্তান মাশরাফি বিন মর্তুজার খুব কাছের একজন মাসুম গাজী। ম্যাশকে ‘মামা’ বলে সম্বোধন করেন মাসুম গাজী। ম্যাশের সাথে সম্পর্কটা পারিবারিক। এ ব্যাপারে মাসুম বলেন, ‘ম্যাশকে আমি মামা বলে ডাকি তাতে কোন আপত্তি নেই তার। আমাকে বরং ভালোবাসেন ও ভীষণ স্নেহ করেন তিনি। আমাকে পরিবারের একজন সদস্যের মতোই দেখেন। এর থেকে বড় পাওয়া আর কিছু হতে পারে না।’

রায়ান বার্লের উপহার পেয়ে আপ্লুত মাসুম বলেন, ‘একজন বিদেশি ক্রিকেটার তিনি আমাকে জার্সি পাঠিয়েছেন এটা আমার জন্য বড় পাওয়া। আমি ধন্যবাদ দিয়ে ছোট করতে চাই না। রায়ান বার্লের এই জার্সি আমি আজীবন আগলে রাখবো।’

বিভিন্ন বিপদে মাসুম পাশে পেয়েছে মুশফিকুর রহিম ও মুমিনুল হক সৌরভকে। তাদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানান তিনি। একজন টিম বয় থেকে ক্রিকেটারদের কাছের মানুষ হয়ে যাওয়া যতোটা সহজ বলে ভাবা যায় ততোটা নয়। মাসুমের বড় শক্তি নির্লোভ চরিত্র আর মানবিক মূল্যবোধ। ক্রিকেটারদের আদর আর ভালোবাসা নিয়ে সারাজীবন কাজ করতে চান তিনি।

মাসুম গাজী বলেন, ‘আমি একজন গরিব মানুষ। কিন্ত ক্রিকেটাররা আমাকে যে ভালোবাসা দিয়েছেন তাতে আমি ধন্য। এই ঋণ কোনদিন শোধ করার নয়।’

বাংলাদেশ জার্নাল/ওয়াইএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত