ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৮:০৩

প্রিন্ট

ক্যাসিনো কাণ্ডে ক্রীড়াঙ্গনে অশনিসংকেত

ক্যাসিনো কাণ্ডে ক্রীড়াঙ্গনে অশনিসংকেত
স্পোর্টস ডেস্ক

খেলাধুলার ক্লাবে জুয়া আখড়া গড়ে ওঠাকে অশনিসংকেত হিসেবে দেখছেন ক্রীড়া সংশ্লিষ্টরা। বহুদিন ধরেই রাজধানীর মতিঝিল পাড়ার স্পোটিং ক্লাবগুলোর চিত্রটা মোটামুটি একই। খেলাকে নির্বাসনে পাঠিয়ে, স্থান হয়েছে জুয়া আর ক্যাসিনোর।

ক্রীড়া সংশ্লিষ্টরা জানালেন, এর ফল হবে ভয়াবহ। আরও খেলাবিমুখ হয়ে উঠবে নতুন প্রজন্ম। এমন পরিস্থিতি থেকে দ্রুত উত্তরণের তাগিদ দিচ্ছেন তারা।

মোহামেডান স্পোটিং, ভিক্টোরিয়া স্পোটিং, আরামবাগ, ওয়ান্ডারার্স, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র, ইয়াংমেন্স ক্লাব। সব ক্লাবই সুপরিচিত। যারা তৈরি করেছে বহু নামিদামি খেলোয়াড়। এসব ক্লাব থেকেই পাওয়া গেছে অবৈধ টাকা, মদ, সিসা ও ক্যাসিনো-জুয়ার সামগ্রী। ঐতিহ্যবাহী এসব ক্লাবের এমন অনৈতিক কার্যকলাপে বিমর্ষ সাবেক ফুটবলার ও সংগঠকরা। তারা বলছেন, এর ভয়াবহতা নতুন প্রজন্মকে খেলাবিমুখ করবে, যা ক্রীড়ার জন্য অশনিসংকেত।

খ্যাতিমান ফুটবলার ও কোচ গোলাম সারোয়ার টিপু বলেন, নতুন প্রজন্মকে ভুগতে হবে। অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের ক্লাবে খেলতে দিতে অনীহা দেখাবেন। এবং এর ফল কিছুদিন পরেই দৃশ্যমান হবে।

ব্রাদার্স ইউনিয়নের ডাইরেক্টর ইনচার্জ মহিউদ্দিন আহমেদ মহি জানান, আমার ক্লাবে কোন অনৈতিক কাজ হয় না। তাই আমার পক্ষে এর ফলাফল বলা কঠিন।

ক্রীড়া সংশ্লিষ্টরা বলছেন, শিক্ষা ও সংস্কৃতির একটি উত্তম মাধ্যম খেলাধুলা। এই মাধ্যম ধসে পড়া মানে, জাতির মেরুদণ্ড ভেঙে পড়া।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত