ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ২ বৈশাখ ১৪২৮ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে

প্রকাশ : ০৫ মার্চ ২০২১, ২২:০৮

প্রিন্ট

এবার তিস্তাপাড়ে স্বপ্নপূরণ হবে!

এবার তিস্তাপাড়ে স্বপ্নপূরণ হবে!
ছবি- প্রতিনিধি

লালমনিরহাট প্রতিনিধি

তিস্তা নদীর ভাঙন থেকে নিজেদের বসতবাড়ি ও ফসলি জমি রক্ষায় স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁধ নির্মাণ করতে তহবিল গঠন শুরু করেছে লালমনিরহাটের তিস্তাপাড়ের মানুষ।

শুক্রবার বিকেলে আদিতমারী উপজেলার মহিষখোচা দক্ষিণপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে সভা শেষে তহবিল গঠন শুরু হয়।

আয়োজকরা জানান, ভারতের সিকিমে সৃষ্ট তিস্তা নদী জন্মলগ্ন থেকে খনন না করায় বালু জমে নদীর তলদেশ ভরাট হয়েছে। বর্ষাকালে সামান্য বৃষ্টি আর উজানের পাহাড়ি ঢলে তিস্তা নদী ফুলে ফেঁপে ওঠে। নদীর কিনার উপচিয়ে লোকালয়ে বন্যার সৃষ্ঠি করে, ফসলহানীসহ অসহনীয় দুর্ভোগে পড়ে তিস্তাপাড়ের মানুষ।

এছাড়াও তিস্তার হিংস্র স্রোতে নদী ভাঙনের কবলে পড়ে প্রতি বছর হাজার হাজার বসতভিটা এবং একরের পর একর ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলিন হচ্ছে। নদী ভাঙন আর বন্যার কবলে পড়ে প্রতি বছর ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে লাখ মানুষ।

তলদেশ ভরাট হওয়া তিস্তা নদী খনন করে দুই তীরে স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের দাবি জানিয়ে আসছে ক্ষতিগ্রস্ত এসব ছিন্নমূল মানুষ।

তারা অভিযোগ করে বলেন, প্রতি বছর বর্ষাকালে সরকার বাঁধ নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিলেও বাস্তবে তা পূরণ হয়নি। সরকার আসে সরকার যায়। কোনো সরকার তিস্তাপাড়ের মানুষের স্বপ্ন পূরণে এগিয়ে আসেনি। তবে বর্তমান সরকার তিস্তা ঘিরে মহাপরিকল্পনার ঘোষণা দিলেও বাস্তবে তার অগ্রগতি না দেখে হতাশ এই এলাকার বাসিন্দারা।

সব অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে নিজেরাই স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁধ নির্মাণে তহবিল ঘটন করলেন।

এসময় স্থানীয় মহিষখোচা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোসাদ্দেক হোসেন চৌধুরীর সভাপতিত্বে ওই ইউনিয়নের সর্বস্তরের মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

খুব দ্রুত এ বেঁড়ি বাঁধ নির্মাণ কাজ শুরু হবে আশা করে তারা বলেন, নদী ভাঙন রোধে কুটিরপাড় বেঁড়ি বাঁধ নির্মাণ তহবিলে সর্বস্তরের মানুষের সহায়তা কামনা করছি।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএস

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত