ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬ আপডেট : ২ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১১ আগস্ট ২০১৯, ১৫:৩৫

প্রিন্ট

বিলম্বের গ্যাঁড়াকলে বাতিল ঈদের বিশেষ ট্রেন

বিলম্বের গ্যাঁড়াকলে বাতিল ঈদের বিশেষ ট্রেন
নিজস্ব প্রতিবেদক

ঈদযাত্রায় রেলের অব্যাহত সূচি বিপর্যয়ে নাভিশ্বাস উঠেছে বাড়িমুখো যাত্রীদের। বিশেষ করে উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমের তিন বিভাগের যাত্রীদের ভোগান্তি অসহনীয় পর্যায়ে ঠেকেছে। এই বিপর্যয়ের মধ্যে উত্তরের পথে ঈদের বিশেষ ট্রেন বাতিল করা হয়েছে। যাত্রা বাতিল হওয়া লালমনি স্পেশালের যাত্রীদের টিকেটের টাকা ফেরত দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন রেল সচিব মোজাম্মেল হোসেন।

গত শুক্র ও শনিবার দুই ছুটির দিনই বাড়ির পথ ধরতে গিয়ে শিডিউল বিপর্যয়ে বিপাকে পড়তে হয়েছে উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমের রেলযাত্রীদের। আর রোববার থেকে ঈদের ছুটি শুরু হয়েছে। ভোররাত থেকে কমলাপুর আর বিমানবন্দর স্টেশেনে বাড়িমুখো যাত্রীদের মহাভিড়।

গত শুক্রবার ঢাকা থেকে খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস টাঙ্গাইলে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব পাশে লাইনচ্যুত হলে ট্রেন বন্ধ থাকে সাড়ে তিন ঘণ্টা। ওই দুর্ঘটনাই সূচি বিপর্যয় ডেকে এনেছে বলে শনিবার রেল কর্তৃপক্ষ দাবি করেছিল।

আর রেলের শিডিউল পরিস্থিতি আরও খারাপ হওয়ার পর রেল সচিব বলেছেন, ওই দুর্ঘটনার প্রভাবের পাশাপশি সূচি ঠিক রাখতে না পারার পেছনে অতিরিক্ত যাত্রীর চাপও একটি কারণ। অতিরিক্ত মানুষের চাপে ট্রেনগুলো নির্ধারিত গতিতে যেতে পারছে না। আর সময়মত কমলাপুরে না ফেরায় সূচিও ঠিক রাখা সম্ভব হচ্ছে না।

রেল সচিব মোজাম্মেল কমলাপুর রেল স্টেশনের পরিস্থিতি দেখতে এসে সাংবাদিকদের বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব স্টেশনে পশ্চিমাঞ্চলের ট্রেনগুলো একবার পরীক্ষা করে দেখা হয়। সেখানে বেশ কিছুক্ষণ দেরি হয়।’

‘ঈদের মওসুমে আমাদের ট্রেনগুলো এমনিতেই ৩ থেকে ৪ ঘণ্টা দেরি করে। শুক্রবার সুন্দরবন এক্সপ্রেস লাইনচ্যুত হওয়ায় সেই সময়টা ৮-১০ ঘণ্টা হয়ে গেছে। অনেকগুলো ট্রেন সিঙ্গেল ট্র্যাকে চলে, সে কারণে গিয়ে আবার সময়মত ফেরত আসতে পারছে না। আর অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে ট্রেনগুলো দুর্ঘটনা এড়াতে নির্ধারিত গতির চেয়ে ধীরগতিতে চলছে। শিডিউল বিপর্যয়ের এটাও কারণ।’

এসসয় যাত্রীদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করে সচিব বলেন, ‘অনেকেই হয়তো ঈদে বাড়ি যেতে পারবেন না। এজন্য দুঃখ প্রকাশ করছি। আমরা সবসময় সব যাত্রীদের নিরাপদে বাড়িতে নিয়ে যেতে চাই।’

এরই মধ্যে যাত্রা বিলম্বিত হতে হতে শেষ পর্যন্ত শিডিউল মেলাতে না পেরে ঈদের বিশেষ ট্রেন লালমনি স্পেশালের যাত্রা বাতিলই করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। রোববার সকাল সোয়া ৯টায় যাত্রী নিয়ে লালমনিরহাটের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়ার কথা ছিল এই ট্রেনের।

তবে এই বিশেষ ট্রেনটির যাত্রীদের জন্য অন্য কোনো ট্রেনের ব্যবস্থা করা হবে কি না সেই প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেননি কমলাপুর স্টেশন মাস্টার আমিনুল হক।

এদিকে পঞ্চগড় এক্সপ্রেস কখন ঢাকা আসবে তার ঠিক না থাকায় ট্রেনটির যাত্রীদের তুলে দেওয়া হয়েছে একতা এক্সপ্রেসে। আর রাজশাহীগামী পদ্মা, খুলনার চিত্রা, রংপুরগামী রংপুর এক্সপ্রেস বিকল্প রেক (ট্রেন) দিয়ে চালানো হবে বলে জানিয়েছেন রেল সচিব।

যাত্রা বাতিল হওয়া লালমনি এক্সপ্রেসের কোনো কোনো যাত্রী টিকেটের টাকা ফেরত না পাওয়ার অভিযোগও করছেন। তবে রেল সচিব বলেন, ‘আমি নিজেই পর্যবেক্ষণে যাব। আমরা বলেছি টাকা ফেরত দেওয়া হবে, তার মানে দেওয়া হবে। এর অন্যথা হবে না।’

এদিকে শিডিউল ভাঙলেও চট্টগ্রাম, সিলেট ও ময়মনসিংহের পথের ট্রেনগুলো মোটামুটি ঠিক সময়ে ছেড়ে গেছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/ওয়াইএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত