ঢাকা, শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ৬ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২১:৩০

প্রিন্ট

দেশি মাছের স্বাদ

দেশি মাছের স্বাদ
লাইফস্টাইল ডেস্ক

নানা প্রজাতির দেশি মাছ এখন চাষ করা হলেও পুকুর, ডোবা, খাল, বিল, হাওর বা নদীর মাছের স্বাদই আলাদা। এদের পুষ্টিমানও বেশি। প্রাকৃতিক বিভিন্ন উৎস থেকে অল্প পরিমাণে দেশি মাছ পাওয়া যায় বলে এর দামও বেশি। কিন্তু ধারাবাহিক দূষণ ও অতিরিক্ত আহরণসহ নানা কারণে দেশি মাছের অনেক প্রজাতি বিলুপ্ত হয়ে গেছে।

চাষের কারণে এখন অবশ্য আগের চেয়ে এ মাছের প্রাপ্তি বেশি। তবে স্বাদের কিছুটা ভিন্নতা লক্ষ্য করা যায়। চাষের ফলে স্থানীয় বাজারে এখন এসব মাছের দেখা মেলে হরহামেশাই।

বাইম

বাইম বা গুচি যে নামেই ডাকা হোক না কেন নদীর এই মাছের চাহিদা থাকে সারা বছরই। অনেকে মনে করেন, বড় বাইম মাছের স্বাদ মাংসের চেয়েও বেশি।

ডিমা চিংড়ি

নদী থেকে ধরা যেসব চিংড়ির পেটে ডিম থাকে সেগুলোকে স্থানীয়ভাবে ডিমা চিংড়ি বলা হয়, এর স্বাদও বেশ।

বেলে মাছ

চাষ করা বেলে মাছ তো অনেক খেয়েছেন, নদীর বেলে মাছের স্বাদ নিতে চান? তাহলে এক কেজি বেলে কেনার জন্য মানিব্যাগে ভরে ফেলুন ১২০০-১৩০০ টাকা। না খেলে কখনো বুঝতেই পারবেন না এর কি যে স্বাদ!

বোয়াল

নদীর মাছের চাহিদা সব সময়ই রয়েছে, আর বোয়াল হলে তো কথাই নেই। সম্প্রতি কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার পলতাকান্দা বাজারে পাঁচ কেজি ওজনের একটি নদীর বোয়াল মাছ চার হাজার ৭৫০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

পাবদা

বিভিন্ন প্রাকৃতিক উৎসের সঙ্গে এখন পুকুরেও চাষ হচ্ছে পাবদা মাছ। তবে চাষের পাবদার থেকে নদীর পাবদা স্বাদে ভিন্ন।

কালিবাউশ

ছবিতে বোয়াল ও রুই মাছের সঙ্গে একটু কালচে রঙের যে মাছ দুটো দেখছেন, সেটিই কালিবাউশ মাছ। এই প্রজাতির মাছ এখন আর খুব একটা পাওয়া যায় না।

বাচা

দেখতে অনেকটা বাতাসি মাছের মতো হলেও এগুলো বাচা মাছ। নদীর বাচা মাছ কিনতে হলে কেজিতে অন্তত হাজার টাকা গুণতে হবে।

রিঠা, আইড়

এসব মাছের জন্য আগে সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উৎসের উপর নির্ভর করতে হতো, ত্বে এখন কেউ কেউ স্বল্প পরিসরে চাষেও সফলতা দেখাচ্ছেন।

বাহারি মাছ

গ্রামাঞ্চলে গেলে নানা প্রজাতির দেশি মাছের দেখা পাওয়া যায়। কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার পলতাকান্দা বাজারে দেশি মাছ নিয়ে বসে আছেন এক বিক্রেতা।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত