ঢাকা, শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ আশ্বিন ১৪২৭ আপডেট : ১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০৭ আগস্ট ২০২০, ১৯:৪৭

প্রিন্ট

সাবেক নৌ-বাহিনীর প্রধান মাহবুব আলীর মৃত্যুবার্ষিকীতে স্মরণসভা

সাবেক নৌ-বাহিনীর প্রধান মাহবুব আলীর মৃত্যুবার্ষিকীতে স্মরণসভা
নিজস্ব প্রতিবেদক

সাবেক নৌ-বাহিনীর প্রধান রিয়ার এডমিরাল মাহবুব আলী খানের ৩৬তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ভার্চুয়াল স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মাহবুব আলী খান সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বড় ছেলে তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জোবায়দা রহমানের পিতা। তার ৩৬তম মৃত্যুবার্ষিকীতে বিভিন্ন কর্মসূচির পাশাপাশি এক ভার্চুয়াল স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সাবেক নৌ-বাহিনীর প্রধান ও ভাষা সৈনিক রিয়ার এডমিরাল মাহবুব আলী খান ১৯৮৪ সালে ৬ আগস্ট মারা যান। ১৯৭৯ সাল থেকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশ নৌ-বাহিনীর প্রধান ছিলেন। একই সঙ্গে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ও পরিচালনা করেন।

‘তার দায়ীত্বকালীন সময়ে সুন্দরবন ডাকাত মুক্ত হয়। এছাড়া বাংলাদেশের নৌ-সীমা রক্ষায় দেশের স্বার্থে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ব্যবস্থা নিয়েছেন। দক্ষিণ তালপট্টি দ্বিপের দখল তারমধ্যে অন্যতম ঘটনা। তৎকালীন সময়ে সামরিক কূটনীতিতেও তার অবদান স্মরণীয়। তার প্রচেষ্টায় সামরিক বাহিনী আধুনিক অস্ত্রসজ্জায় সজ্জিত হয়।’

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, বিশেষ অতিথি ছিলেন- মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ এবং সাবেক বিমানবাহিনীর প্রধান এয়ার ভাইস মার্শাল আলতাফ চৌধুরী। এছাড়া রিয়ার এডমিরাল মাহবুব আলী খানের কনিষ্ঠ জামাতা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এবং তার স্ত্রী মাহবুব আলী খানের কনিষ্ঠ কন্যা ডা. জোবাইদা রহমান উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে আরও ছিলেন- সিলেটের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, বিএনপির নির্বাহী কমিটির জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সম্পাদক একেএম ওয়াহিদুজ্জামান, সদস্য মীর হেলাল, যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেক প্রমুখ।

স্মরণ সভায় রাজনীতিতে মাহবুব আলী খানের অবদান তুলে ধরেন তারই রাজনৈতক সহযোদ্ধা মওদুদ আহমদ। এছাড়া দক্ষিণ তালপট্টি দ্বীপ দখলে তার সাহসিকতা তুলে ধরেন মেজর হাফিজ উদ্দিন আহমেদ।

মাহবুব আলী খানের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে শাহজালাল দরগাহ মসজিদে দোয়া মাহফিল ও খাবার বিতরণ করা হয়। খাবার বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিলেট সিটি করপোরেশন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

বাংলাদেশ জার্নাল/কেএস/ওয়াইএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত