ঢাকা, বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৩:০২

প্রিন্ট

প্রতিযোগিতায় সেরা ‘মামা ভাগ্নে’ নৌকা

প্রতিযোগিতায় সেরা ‘মামা ভাগ্নে’ নৌকা
রাজবাড়ী প্রতিনিধি

একসময় বিভিন্ন ধরনের খেলা অনুষ্ঠিত হত গ্রামের মাঠগুলোতে। অথচ সময়ের পরিক্রমায় আজ আর সেসব খেলা একবারেই দেখতে পাওয়া যায়না। হারিয়ে যেতে বসেছে গ্রাম বাংলার এসব ঐতিহ্যবাহী খেলাগুলো। আর সেই ধারাবাহিকতা ও পুরোনো ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে রাজবাড়ী সদর উপজেলার বেলগাছির পদ্মানদীর শাখায় দুইদিন ব্যাপি নৌকা বাইচের আয়োজন করে এ অঞ্চলের যুব সমাজ।

রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানগঞ্জ ইউনিয়নের হাটবাড়ীর পদ্মা নদীর শাখায় দুই দিনব্যাপী নৌকা বাইচ প্রাতযোগিতার ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়। বুধবার বিকালে ইউনিয়নের হাটবাড়ীয়া যুব সমাজের আয়োজনে এ নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিযোগিতায় মোট ৬টি নৌকা অংশ নেয়। এতে চাম্পিয়ান হয় চন্দনীর ফজের আলীর ‘মামা ভাগ্নে’ নৌকা। দ্বিতীয় হয়েছে বেলগাছির সুনামদ্দিন শেখের ‘মায়ের দোয়া’ এবং পাংশার সোহরাব মন্ডলের ‘আনারকলী’ নৌকাটি হয়েছে তৃতীয়।

এ সময় প্রথম স্থান অধিকারীকে একটি ফ্রিজ, দ্বিতীয় স্থান অর্জনকারীকে এলইডি টেলিভিশন ও তৃতীয় স্থানকে গ্যাস স্টোভ এবং অন্যান্য প্রতিযোগীকে সান্তনা পুরস্কার দেওয়া হয়।

এই নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, খানগঞ্জের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক প্রামানিক।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, খানগঞ্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আতাহার হোসেন তকদির, সাবেক চেয়ারম্যান আকরামুজ্জামান রঞ্জু, দাদপুর বাজার বনিক সমিতির সভাপতি আরিফুর রহমান শামীম, সাধারন সস্পাদক আব্দুল্লাহ আল মতি রাজন, ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলী, উজ্জল কুমার প্রামানিক, ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন, শাহ আলম টিটু প্রমূখ।

নৌকা বাইছ দেখতে নদীর কোলে হাজার হাজার উৎসুক জনতা ভিড় করেন এবং আনন্দের সাথে বাইছ প্রতিযোগিতা উপভোগ করেন। তারা আয়োজকদের প্রতিবছর এ ধরনের আয়োজন করতে অনুরোধ করেন। সেই সাথে এ আয়োজন করায় কমিটির সকলকে ধন্যবাদ জানান দর্শকরা। অনেকে এই ধরনের নৌকাবাইচ আগে কখনও দেখেননি। এই প্রথম নৌকা বাইচ দেথে তারা খুবই আনন্দিত এবং উৎসাহিত হয়েছেন।

এদিকে আয়োজক কমিটির সদস্যরা বলছেন, ৩ বছর ধরে তারা সফলভাবে এ নৌকা বাইছ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আসছেন। সামনের বছরগুলোতে তারা আরো বড় করে এ আয়োজন করবেন বলেও জানান।

চলছে পুরস্কার বিতরণী

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত