ঢাকা, বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২১ অক্টোবর ২০১৯, ১২:৪৩

প্রিন্ট

চিলিতে বিক্ষোভ চলাকালে কারখানায় আগুন, নিহত ৮

চিলিতে বিক্ষোভ চলাকালে কারখানায় আগুন, নিহত ৮
অনলাইন ডেস্ক

চিলিতে বিক্ষোভ চলাকালে রাজধানী সান্তিয়াগোতে এক গার্মেন্টস কারখানায় আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়। এ ঘটনায় কমপক্ষে আটজন নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

বিক্ষোভকারীদের হঠাতে পুলিশ টিয়ার গ্যাস ও জল কামান ব্যবহার করে। বিক্ষোভ ঠেকাতে ইতিমধ্যে রাজধানীসহ বিভিন্ন শহরে রোববার জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। এর আগে শনিবার সকালে কেবল রাজধানী সান্তিয়াগোতে জরুরি অবস্থা জারি করেছিলেন দেশটির প্রেসিডেন্ট সেবাস্তিয়ান পিনেরা।

গণপরিবহনের ভাড়া বাড়ানোর কারণেই মূলত এ আন্দোলন শুরু হয়। পর্যায়ক্রমে তা সহিংসতায় রূপ নেয়। প্রেসিডেন্ট সেবাসতিয়ান পিসেরা ইতিমধ্যে অতিরিক্ত ভাড়া বাতিল করার ঘোষণা দিয়েছেন। কিন্তু তারপরও বিক্ষোভ ও সহিংসতা অব্যাহত রয়েছে।

দেশটির রাজধানী সান্তিয়াগোর গভর্নর জানান, বিক্ষোভকারীরা একটি বিল্ডিং লুট করার পর তাতে আগুন লাগিয়ে দিলে তাৎক্ষণিকভাবে তিনজন নিহত হন। পরে ওই ভবনের বেসমেন্ট থেকে আরও পাঁচটি মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অন্ড্রেজ চাদউইক জানান, ৭৪০টির বেশি সুপারমার্কেটে লুটপাট চালানো হয়েছে। সবমিলিয়ে গত কয়েকদিনে ৭০টির বেশি সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে রাজধানীর সড়কগুলোতে সাড়ে ১০ হাজার পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বিক্ষেভের ঘটনায় গত ৩ দিনে আটক করা হয়েছে আরো ১৪শয়ের বেশি লোকজনকে। পুলিশের সঙ্গে সংর্ষে আহত হয়েছে আরো বেশ কয়েকজন।

সরকার পাবলিক ট্রান্সপোর্টে শতকরা ৪ ভাগ ভাড়া বৃদ্ধির ঘোষণা দিলে এর প্রতিবাদে গত সোমবার থেকে বিক্ষোভ শুরু হয়। পরে এ বিক্ষোভ সহিংসতায় রূপ নেয়।

বিক্ষোভ সম্পর্কে চিলির প্রেসিডেন্ট সেবাস্তিয়ান পিনেরা বলেন, শহরের বড় ধরনের ক্ষতি যারা করেছে সেসব ‘সন্ত্রাসীদের’ বিচারের আওতায় আনার জন্য বিশেষ নিরাপত্তা আইন প্রয়োগ করা হবে। এ সময় বিক্ষোভের কারণে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাদের প্রতি সহানুভূতি প্রকাশ করেন তিনি।

সূত্র: বিবিসি

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত