ঢাকা, শুক্রবার, ২২ জানুয়ারি ২০২১, ৮ মাঘ ১৪২৭ আপডেট : ১২ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৮ নভেম্বর ২০২০, ১২:৫৫

প্রিন্ট

প্রেমিকাকে লাশ দেখতে দেননি ম্যারাডোনার বউ

প্রেমিকাকে লাশ দেখতে দেননি ম্যারাডোনার বউ

স্পোর্টস ডেস্ক

নিজের প্রজন্মের সেরা প্রতিভা- ম্যারাডোনা। বোকা জুনিয়ার্স, বার্সেলোনা ও নাপোলির জার্সিতে ঝকঝকে ফুটবল ক্যারিয়ার কিন্তু জাতীয় দলের জার্সি গায়ে তার পারফরম্যান্স একেবারে নক্ষত্রমণ্ডলীর মতোই উজ্জ্বল। একক দক্ষতায় দেশকে বিশ্বকাপ এনে দেওয়ার মত নজির তার নামে লেখা রয়েছে। তার হঠাৎ প্রয়াণের ঘটনায় স্তম্ভিত গোটা দুনিয়া। ফুটবলের অসম্ভব প্রতিভাধর এই তারকার ব্যক্তিগত জীবন যেমন বর্ণময় তেমনিই ওঠাপড়ায় ভরা৷

আর্জেন্টিনার কিংবদন্তি এই ফুটবলারের জীবনে এসেছেন অনেক নারী। শেষ প্রেমিকা হিসেবে এসেছিলেন রোসিও অলিভা, যিনি ম্যারাডোনা থেকে ৩০ বছরের ছোট। ম্যারাডোনার প্রয়াণের পর তাকে দেখতে আর্জেন্টিনার প্রেসিডেনশিয়াল প্যালেস কাসা রোসাদায় এসেছিলেন তিনি। যেখানে রাখা ছিল ম্যারাডোনার কফিন।

কিন্তু রোসিওকে ম্যারাডোনার লাশ দেখতে দেন নি ম্যারাডোনার সাবেক বউ ক্লদিয়া ভিয়াফান। এমনই অভিযোগ জানিয়েছেন সাবেক প্রেমিকা রোসিও।

কিন্তু কর্তৃপক্ষ জানায়, দেরি করে আসায় অলিভাকে ঢুকতে দেওয়া যায়নি। যদিও তখন অলিভা দাবি করেছিলেন, তাকে সাধারণ মানুষের কাতারে দাঁড়াতে বলা হয়েছিল, পরিবারের একজন হিসেবে যেটা খুব আপত্তিকর।

অর্থাৎ ৬০ বছর বয়সী ম্যারাডোনার ঘনিষ্ঠজনদের একজন হিসেবে তাকে শেষবিদায় জানাতে পারেননি অলিভা। এ নিয়ে তিনি পরে মুখ খুলেছেন সংবাদমাধ্যমে। ম্যারাডোনার সাবেক স্ত্রী ক্লদিয়া ভিয়াফানের ইচ্ছায় তাকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি, এমন অভিযোগ তুলে কেঁদে ফেলেন অলিভা।

২০১৮ সালে বিচ্ছেদের আগে ছয় বছর অলিভার সঙ্গে চুটিয়ে প্রেম করেছেন ম্যারাডোনা। আর্জেন্টাইন কিংবদন্তিকে ‘নিজের জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মানুষ’ বলেছেন অলিভা, ‘আমরা একে অন্যকে ভালোবেসেছিলাম, তাকে ইতিবাচকভাবেই সব সময় মনে রাখব।’

বাংলাদেশ জার্নাল/টিআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত