ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে English

প্রকাশ : ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:২০

প্রিন্ট

তিতুমীরে হয় না অনলাইন ক্লাস, ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস কর্তৃপক্ষের

তিতুমীরে হয় না অনলাইন ক্লাস
ফাইল ছবি
তিতুমীর কলেজ প্রতিনিধি

রাজধানীর প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত সরকারি তিতুমীর কলেজের অনলাইন ক্লাস চলছে নামমাত্র। অনেক বিভাগে গত একমাস ধরে ক্লাস বন্ধ। কিছু বিভাগে ক্লাস চলছে স্বল্প পরিসরে। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ কিছু ক্লাস হলেও তার মান খুবই খারাপ। দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও ‘অনলাইন ক্লাসের’ মান উন্নয়ন করতে পারেনি কর্তৃপক্ষ।

করোনার কারণে গত ৭ মার্চের পর কয়েক দফায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বেড়েছে। আজ ১৮৮ দিন অর্থ্যাৎ ৬ মাস ৮ দিন শিক্ষার্থীরা প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা থেকে বঞ্চিত। এ পরিস্থিতি বিকল্প হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) পক্ষ থেকে পাবলিক বিশ্ববিদ্যায়গুলোকে ক্লাস চালিয়ে নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। আর প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে অনলাইনে ক্লাস পরিচালনার পাশাপাশি পরীক্ষা নেওয়ারও অনুমতি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু অভিযোগ রয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ই এ নীতিমালা ঠিকভাবে মানছে না। আর এই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সাত কলেজের জন্যও আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো নির্দেশনা দেয়নি। এ সুযোগে এসব প্রতিষ্ঠানও চলছে যেনতেনভাবে।

তিতুমীর কলেজের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে তাদের ভিন্নতর অভিজ্ঞতার কথা জানা গেছে। কোনো কোনো বিভাগের শিক্ষার্থীরা জুম অ্যাপে ক্লাস করলেও কেউ কেউ পাচ্ছেন রেকর্ডিং ভিডিও। কেউ আবার কোনো ধরনের ক্লাসই পাচ্ছে না।

শিক্ষার্থীদের বক্তব্য, ঢাকা কলেজে, ইডেন কলেজসহ ঢাবির অধিভুক্ত অন্যান্য কলেজগুলো অনলাইনে ক্লাসে যতোটা গুরুত্ব দিচ্ছে বা আগ্রহ দেখাচ্ছে তিতুমীর কলেজ কর্তৃপক্ষ তা দেখাচ্ছে না।

নিজস্ব উদ্যোগে তিতুমীর কলেজে কেমন অনলাইন শিক্ষাকার্যক্রম চলছে এ বিষয়ে একাধিক শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা হয়েছে প্রতিবেদকের। তারা নিজ নিজ জায়গা থেকে নিজেদের অভিজ্ঞতা তুলে ধরেছেন। কেউ কেউ আবার হতাশাও ব্যক্ত করেছেন।

তিতুমীর কলেজের বাংলা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী নাজমুল হুদা বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, করোনার কারণে যখন দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে গেল তখন ভাবছিলাম সামনের দিনগুলোতে কিনা কী হয়! শেষে দেখলাম তিতুমীর কলেজে অনলাইন ক্লাস শুরু হলো। প্রথম দিকে ভালোই লাগছিলো কিন্তু ৪-৫ টা ক্লাস হওয়ার পর সেই যে ক্লাস বন্ধ হলো আর কোনো ক্লাস হয়নি এখনো। আর কবে ক্লাস হবে, নাকি আর হবে না তা জানি না। এভাবে কয়েকটা ক্লাস নিয়ে কোনো লাভ হলো না। আমরা দিনকে দিন পিছিয়ে পড়ছি। অন্যান্য কলেজগুলো যেমন: ইডেন, ঢাকা কলেজে নিয়মিত ক্লাস হয়। আমাদের হয় না।

রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের আবিদ বলেন, আমাদের ক্লাস ঠিকভাবেই হচ্ছে। তবে জুমের মাধ্যমে ক্লাস নিলে ১৫ জনের বেশি উপস্থিতি দেখা যায় না। তাই ক্লাস রেকর্ড করে আপলোড করলে আমাদের জন্য ভালো হয়। একসময়ে সবার পক্ষে থাকা সম্ভব না। অনেকে গ্রামে চলে যাওয়ায় নেট সমস্যা ছাড়াও অনেক সমস্যার সম্মুর্খীন হচ্ছে।

ব্যবস্থাপনা বিভাগের আনিতা বলেন, শুরুতে ক্লাস ভালই হয়েছিল, একদম রুটিন মেনেই ক্লাস হতো কিন্তু আজ প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে কোনো ক্লাস হয় না।

হিসাববিজ্ঞান বিভাগের ফাহিম বলেন, ক্লাস সপ্তাহে শুধু একটা করে হয় যা আমাদের জন্য যথেষ্ট নয়। এভাবে হলে আমরা পিছিয়ে পরব।‌

এছাড়া অন্যান্য বিভাগের আরো কয়েকজন শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, সব বিভাগে ক্লাস নেওয়ার ব্যাপারে ততোটা মনোযোগী না কর্তৃপক্ষ। কলেজ প্রশাসনের এ বিষয়ে আরো মনোযোগী হওয়া দরকার।

সরকারি তিতুমীর কলেজের ওয়েবসাইট

সার্বিক বিষয়ে জানতে তিতুমীর কলেজের অধ্যক্ষ মো. আশরাফ হোসেনের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে ফোনে পাওয়া যায়নি।

তবে, কলেজের উপাধ্যক্ষ ড. আবেদা সুলতানা বলেন, ‘আমরা মন্ত্রণালয় থেকে যে ধরনের নির্দেশনা পেয়েছি সেভাবেই ক্লাস নিচ্ছি। আমরা করোনার শুরু থেকে প্রায় প্রতিটা ডিপার্টমেন্টে ক্লাস নিয়ে আসছি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আমাদের আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানানো হয়নি।’

অনেক ডিপার্টমেন্টেই ঠিকভাবে ক্লাস হচ্ছে না বলে অভিযোগ রয়েছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপাধ্যাক্ষ বলেন, ‘আমার জানা মতে সব ডিপার্টমেন্টেই ক্লাস হচ্ছে। এ বিষয়টি মনিটরিংয়ের দায়িত্ব ডিপার্টমেন্টের প্রধানদের। আমরা অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেব।’

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

আরো পড়ুন:

> প্রাণের ক্যাম্পাসে ফিরতে চায় তিতুমীরিয়ানরা

> তিতুমীরের ফুট ওভারব্রিজে লাগছে সংস্কারের ছোঁয়া

> সরকারি তিতুমীর কলেজ শিক্ষক পরিষদের নতুন কমিটি​

> প্রশংসিত ‘তিতুমীর কলেজ সাংবাদিক সমিতি’

> নিজ ঘরে ‘পরবাসী’ তিতুমীর পরিবার

> সরকারি তিতুমীর কলেজের ওয়েবসাইট হ্যাক

> তিতুমীরে পানি সংকট, বার বার আশ্বাসেও মেলে না সমাধান

> তিতুমীর কলেজে ৫টি বাস দিচ্ছেন কাদির মোল্লা

> তিতুমীরে পানির সংকট, স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে শিক্ষার্থীরা

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত